কুষ্টিয়ায় কোভিড হাসপাতালে জায়গা নেই, আরও ১৭ জনের মৃত্যু, নতুন সনাক্ত ২৯২

23
Print Friendly, PDF & Email

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, কুষ্টিয়া:
কঠোর স্বাস্থ্যবিধির নির্দেশনার মধ্যেই সীমান্তবর্তী জেলা কুষ্টিয়ায় নভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে চলেছে। করোনা বিশেষায়িত হাসপাতাল ঘোষণা করা জেলার ২৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে কোনো শয্যা খালি নেই।

গতকাল রোববার সকাল ৮টা থেকে আজ সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১৪ জনের করোনা পজিটিভ এবং তিন জনের করোনার উপসর্গ ছিল। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. তাপস কুমার সরকার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য মতে, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৮৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৯২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৩ শতাংশ।

গত সাত দিনে কুষ্টিয়ায় এক হাজার ৪১০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, আর মৃত্যু হয়েছে ৬১ জনের। এ পর্যন্ত জেলায় ২৫৯ জনের মৃত্যু হলো।

কুষ্টিয়া করোনা বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটের সেবিকা ইনচার্জ (স্টাফ নার্স) দীপ্তি রানী জানান, ২৫০ শয্যার হাসপাতালে করোনা ও এর উপসর্গ নিয়ে আইসোলেশনে আছেন ২৬৯ জন রোগী। অর্ধেকের বেশি রোগীর অক্সিজেন প্রয়োজন হচ্ছে। মাত্র চারটি আইসিইউ শয্যা ও ১০ শয্যার সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপোর্ট নিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে।

এদিকে, চলমান সাত দিনের লকডাউনে স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতার মধ্যেও যত দিন যাচ্ছে তত বেশি মানুষ বাইরে বের হচ্ছেন। স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে চলেছেন তারা।

গতকাল রোববার দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্যকারী ৮৬ জনের কাছ থেকে ৬৮ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় ও একজনের জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেনা সদস্যদের টহল দিতেও দেখা গেছে।