আওয়ামী লীগ হীরার টুকরা, যত কাটবে তত জ্বল জ্বল করবে: প্রধানমন্ত্রী

17
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে তা আওয়ামী লীগই করেছে বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, আমাদের উন্নয়ন কোনো ম্যাজিক না, এটা একটা পরিকল্পনা, একটা আদর্শ ও দর্শন।
বৈশ্বিক সংকটের জন্য ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রমে কিছুটা বাধার সৃষ্টি হলেও, দেশের সব মানুষ যাতে টিকা পায়, সেই লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বুধবার (২৩ জুন) বিকেলে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে একথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যারা ভ্যাকসিনের ডাবল ডোজ নিয়েছেন, তারাই সমালোচনায় নেমেছেন। নির্দিষ্ট পরিকল্পনা, দর্শন ও আদর্শ নিয়ে কাজ করার ফলেই দেশের অগ্রগতি সম্ভব হয়েছে বলে জানান তিনি।

মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বে দেয়া আওয়ামী লীগ পা রাখল প্রতিষ্ঠার ৭৩ বছরে। করোনার মধ্যে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানেও নেই উৎসবের কোনো ঘনঘটা।

বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল মাধ্যমে যোগ দিয়ে সভাপতিত্ব করেন দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করার কারণেই রাজপথে জীবন গেছে অগণিত আওয়ামী লীগ কর্মীর, বার বার আঘাত এসেছে দলের ওপরও।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ হচ্ছে হীরার টুকরা, যত কাটা হবে, তত জ্বল জ্বল করবে। আরও নতুনভাবে জ্যোতি ছড়িয়েছে। যে সংগঠন মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে গড়ে ওঠে, সেই সংগঠনকে এতো সহজেই শেষ করে দেয়া যায় না।

অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরা শুধু ভোগ বিলাস আর হত্যায় মগ্ন ছিল বলেও আক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মার্শাল ল জারি করা অবস্থায় যে দল করা হলো, তার একটা হলো বিএনপি আরেকটা হলো জাতীয় পার্টি। বিএনপি ও জাতীয় পার্টি তো মানুষের জন্য কাজ করে উঠে আসেনি। আজকে বাংলাদেশে যে উন্নয়ন তা কিন্তু আওয়ামী লীগের হাতেই। আমাদের উন্নয়ন কোনো ম্যাজিক না, এটা একটা পরিকল্পনা, একটা আদর্শ ও দর্শন।

করোনা সংকটের মধ্যেও দক্ষিণ এশিয়ায় একমাত্র বাংলাদেশই ভালো অবস্থান ধরে রেখেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বৈশ্বিক সংকটের পরও দেশের সবাইকে ভ্যাকসিন দেয়ার চেষ্টা করছে সরকার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটা মানুষের কাছে যেন এই ভ্যাকসিনটা পৌঁছে যায় সেভাবেই আমরা কাজ করেছি এবং পর্যায়ক্রমে যেন পৌঁছে যায় সে ব্যাপারেও আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।

অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাদের দেওয়া হয়েছে, তাদের দুই ডোজের পর তারাই এখন সমালোচনা করেন। অথচ তারাই আগে টিকা নিয়েছেন। খুবই অবাক লাগে তারা যখন নিয়েছেন, তখন কিন্তু এসব বলেননি।

রাজনৈতিক শক্তি হয়ে মানুষের জন্য সর্বান্তকরণে কাজ করতে দলের নেতা-কর্মীদের আহ্বান জানান সরকার প্রধান।