জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের দাবি, দেশে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টেই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ

19
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
মৃত্যু, শনাক্ত আর সংক্রমণ হার এ তিন সূচকেই আবারও অবনতির দিকে দেশের কোভিড পরিস্থিতি। গত সপ্তাহে মৃত্যু বেড়েছে ২৫ শতাংশের ওপরে। এমনকি ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট এখন আর সীমান্ত এলাকাতেই সীমাবদ্ধ নয়, ছড়িয়ে পড়ছে রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে। এ অবস্থায় দেশে কোভিডের তৃতীয় ঢেউয়ের শঙ্কার কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। সমন্বিত পদক্ষেপ না নিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ কঠিন হবে বলেও সতর্ক করেন তারা।

গত মার্চ-এপ্রিলের ভয়ানক কোভিড ধাক্কা কাটিয়ে ধীরে ধীরে উন্নতির দিকে যাচ্ছিল সার্বিক পরিস্থিতি। তবে স্বস্তিদায়ক এ অবস্থার স্থায়িত্ব যে বেশিদিনের নয় এরই মধ্যে মিলছে সে ইঙ্গিতও।

ভারতে পাওয়া কোভিডের ডেল্টা ধরনের প্রভাবে সীমান্তবর্তী জেলাগুলোর অবস্থা এখন বেশ উদ্বেগের। যার ধাক্কা এখন দেশের সামগ্রিক কোভিড পরিস্থিতিতেই। কোভিডে মৃত্যু, আক্রান্ত শনাক্ত আর সংক্রমণ হার-সব সূচক আবারও ঊর্ধ্বগতি। টানা ৫ সপ্তাহ কমতির দিকে থাকার পর গত ৩ সপ্তাহ ধরে আবারও বাড়ছে আক্রান্ত শনাক্ত। আগের ৫ সপ্তাহ ধীরে ধীরে কমলেও সবশেষ সপ্তাহে দেশে মৃত্যু বেড়েছে ২৫ শতাংশের বেশি।

ভারতে পাওয়া ডেল্টা ধরনও এখন আর সীমাবদ্ধ নয় কেবল সীমান্ত এলাকায়। আইইডিসিআর ও আইডিসির যৌথ গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ার।

এই অবস্থায় দেশে তৃতীয় ঢেউয়ের শঙ্কার কথা জানান জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক রিদওয়ানউর রহমান।
জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক রিদওয়ান উর রহমান বলেন, এটা ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কারণে হচ্ছে। এ বারাটা আগামী কয়েক সপ্তাহ চলবে। দেশব্যাপী সংক্রমিত হতে থাকবে আর আমরা তৃতীয় ওয়েবে আছি।

এ বিশেষজ্ঞ বলছেন, সমন্বিতভাবে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে না পারলে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না পরিস্থিতি। কিন্তু বড় ঘাটতি এখানেই, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে সীমান্তবর্তী ৭ জেলায় কঠোর লকডাউনের সুপারিশ করার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও তা বাস্তব রূপ পায়নি মাঠপর্যায়ে।

তিনি আরও বলেন, সময়মতো আমরা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। সমন্বয় ছিল না- এখনো নেই এমন হলে তো হয় না, এমন একটা দুর্যোগ পরিস্থিতিতে। এটাকে সমন্বিতভাবে সরকারকে যে উদ্যোগটা নেওয়ার কথা ছিল সেটা বরাবরই অনুপস্থিত।

সংক্রমণের রাশ টানতে নমুনা পরীক্ষার বাড়ানোর পাশাপাশি আইসোলেশন, কোয়ারেন্টাইন কঠোরভাবে নিশ্চিতের তাগিদ দেন তারা।