দেশে এক সপ্তাহে সংক্রমণ বেড়েছে ২৩ শতাংশ, মৃত্যু ২৫ শতাংশ

9
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
দেশে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা আবারও বাড়তে শুরু করেছে। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশে সংক্রমণ বেড়েছে ২৩.৪৮ শতাংশ, একইসঙ্গে মৃত্যু বেড়েছে ২৫.৩৭ শতাংশ।

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত ২৩ মে থেকে ২৯ মে পর্যন্ত (সংক্রমণের ২১মত সপ্তাহে) এক লাখ ৯ হাজার ৬৫১টি নমুনা পরীক্ষা করে নয় হাজার ৬৬০ জনের করোনা শনাক্ত হয়, একইসঙ্গে ২০১ জনের মৃত্যু হয়। এই সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন সাত হাজার ৬১০ জন।

এরপর গত ৩০ মে থেকে ৫ জুন পর্যন্ত (সংক্রমণের ২২মত সপ্তাহে) এক লাখ ১৯ হাজার ২০২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১১ হাজার ৯২৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়। সেই সঙ্গে ২৫২ জনের মৃত্যু হয়। এই সপ্তাহে করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হন আরও ১২ হাজার ১৭ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৮০১ জনের। এছাড়াও এ সময় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৪৭ জন। মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ লাখ ৯ হাজার ৩১৪ জনে। এছাড়াও গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৬৬৭ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৪৯ হাজার ৪২৫ জন।

এতে আরও বলা হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৭৬৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ১১৫টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১১ দশমিক ০৩ শতাংশ। দেশে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৬০ লাখ ৩৪ হাজার ২৬০টি। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪১ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৪৩ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ১২ জন। এছাড়া চট্টগ্রামে ৮, রাজশাহীতে ১২, খুলনায় ৫, ময়মনসিংহে ২, সিলেটে ১ এবং রংপুরে ৩ জন মারা গেছেন।

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ৩০ জন পুরুষ এবং ১৩ জন নারী। এদের মধ্যে বাসায় মারা গেছেন ১ জন। বাকিরা হাসপাতালে মারা গেছেন। এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে মোট মারা যাওয়া ১২ হাজার ৮০১ জনের মধ্যে পুরুষ ৯ হাজার ২৩১ জন এবং নারী ৩ হাজার ৫৭০ জন।

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ২১ জনেরই বয়স ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ বছরের ১৩, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ২ এবং ৩১ থেকে ৪০ বছরের ৫ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের ১ জন এবং ০ থেকে ১০ বছরের একজন রয়েছেন।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।