দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাটে ঢাকাগামী যাত্রীদের চাপ বেড়েছে

6
Print Friendly, PDF & Email

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, রাজবাড়ী ও মানিকগঞ্জ:
রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া এবং মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় ঢাকাগামী যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে ভোগান্তি। সরকার ঘোষিত ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ মধ্যে দেশের সব দোকানপাট-শপিংমল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের পর থেকেই ঢাকাগামী যাত্রীদের চাপ বাড়তে শুরু করে। তবে আগামী ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত সব নৌযান ও গণপরিবহণ চলাচল বন্ধের নির্দেশ এখনও বলবৎ রয়েছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা।

আজ সোমবার সকালে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ফেরিতে অতিরিক্ত যাত্রী আসতে দেখা গেছে। যদিও ফেরিতে যাত্রী পারাপারের নির্দেশনা সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়নি। শুধু জরুরি পরিষেবার জন্য হাতেগোনা তিন থেকে চারটি ফেরি চলাচলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে লঞ্চ পারাপার বন্ধ থাকলেও বিকল্প পথে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় লোকজনকে পার হতে দেখা গেছে।

এদিকে, আজ সোমবার সকালে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা সেক্টরের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, ‘দৌলতদিয়া ঘাটে যাত্রীদের বেশ চাপ রয়েছে। তবে ফেরির সংখ্যা কম থাকায় পাটু‌রিয়া ঘা‌টে চাপ অতটা লক্ষ করা যাচ্ছে না। দু-একটি জরুরি পরিষেবা বহনকারী যানবাহন পরিবহণের সময় ফেরিতে অতিরিক্ত যাত্রী আসতে দেখা যাচ্ছে।

যদিও এই ঘাটে ১৬ থেকে ১৭টি ফেরি সবসময় পরিবহণ পারাপারের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে। কিন্তু লকডাউনের কারণে তিন থেকে চারটি ফেরিকে জরুরি পরিষেবা বহনকারী পরিবহণের জন্য ঘাট এলাকায় নোঙর করে রাখা হয়েছে।

অপরদিকে, পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় গণপরিবহণ না থাকায় যাত্রীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। তবে, বিভিন্ন মোটরসাইকেল ও অন্যান্য ছোট-ছোট প্রাইভেটকারে করে চড়ামূল্যে ঢাকা যাচ্ছেন যাত্রীরা। এছাড়া ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের সারিও দেখা গেছে।