ঈদযাত্রায় বেরিয়ে ঢাকা মেডিকেলে মামা-মামী-ভাগনি

19
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
ঈদুল আজহা সামনে রেখে বাড়ির পথে রওনা দিয়ে হাসপাতালে ঠাঁই হয়েছে একই পরিবারের তিন সদস্যের। মিরপুর থেকে সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে সায়েদাবাদের দিকে রওনা হয়েছিলেন তারা। সেখান থেকে বাসে চড়ে যাওয়ার কথা ছিল গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে। কিন্তু সায়েদাবাদ রেল লাইনে তাদের অটোরিকশা আটকে গেলে একটি ট্রেন তাতে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশার ওই তিন যাত্রী আহত হয়ে এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, সোহেল আহমেদ (৩২), তার স্ত্রী আশুরা বেগম (৩০) ও ভাগনি সামিয়া সামিয়া আক্তার (১৮)।

ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতরা জানান, তারা মিরপুর ১১ নম্বর সেকশনের ৭ নম্বর রোডের ১৪১ নম্বর বাসায় থাকেন। তাদের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ। সায়েদাবাদ থেকে বাসে চড়ে বাড়ি যাওয়ার কথা ছিল তাদের। সেই উদ্দেশ্যেই ভোরে মিরপুর থেকে সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে রওনা দিয়েছিলেন তারা।

তারা আরও জানান, সায়দাবাদ ফ্লাইওভার এলাকায় ওই অটোরিকশা রেল লাইনে উঠে গেলে একটি চাকা গর্তে পড়ে যায়। অনেক ধাক্কাধাক্কি করেও সিএনজি অটোরিকশাটি সেখান থেকে তোলা যায়নি। এসময় ট্রেন চলে এলে তা সিএনজিকে ধাক্কা দেয়। এতে সোহেল, আশুরা ও সামিয়া আহত হন। এসময় ঘটনাস্থলে সিএনজি অটোরিকশার চালককে দেখা যায়নি। স্থানীয়রা আহত তিন জনকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যান।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ বক্সের সহকারী ইনচার্জ সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আব্দুল খান জানান, সকাল ৭টার দিকে সায়দাবাদ থেকে তিন জনকে আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসা হয়। তাদের মধ্যে সোহেলের অবস্থা গুরুতর। তিন জনকেই ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।