দাবি না মানলে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির

31
Print Friendly, PDF & Email

জয়নাল আবেদীন জিহান, বশেমুরবিপ্রবি:
পদোন্নতি বঞ্চিত শিক্ষকদের আপগ্রেডেশন নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়ন ও কার্যকর না হলে আগামী ৬ এপ্রিল থেকে সকল প্রকার একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মোঃ কামরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ আবু সালেহ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়, গত ২২ এপ্রিল সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একটি সাধারন সভার আয়োজন করা হয়। সাধারণ সভায় ১২৮ জন শিক্ষকের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে পূর্বনির্ধারিত অ্যাজেন্ডাভিত্তিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

আলোচ্য বিষয়গুলোর মধ্যে ছিলো- পদন্নোতি বঞ্চিত শিক্ষকদের দ্রুত আপগ্রেডেশন, খন্ডকালীন শিক্ষকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ, প্রত্যেক শিক্ষকের জন্য আলাদা বসার ব্যবস্থা, স্বতন্ত্র বাস সেবা, শিক্ষার্থীদের জন্য সার্বক্ষণিক মেডিকেল সেবা প্রদান, বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল নির্মাণের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ ইত্যাদি।

বিশেষ করে প্রাপ্যতার তারিখ হতে পদোন্নতি এবং শিক্ষা ছুটির বিপরীতে থাকা শিক্ষকদের চাকরী স্থায়ীকরণে প্রশাসনের দীর্ঘসূত্রিতায় হতাশা জ্ঞাপন করেন উপস্থিত শিক্ষকগণ।

শিক্ষক সমিতির দাবি, এর আগেও প্রশাসন অনেকবার এ ব্যাপারে আশ্বাস দিলেও কার্যকর কোন পদক্ষেপ দিতে দেখা যায়নি। উল্লেখ্য যে, অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বশেষ শিক্ষক নিয়োগ/ আপগ্রেডেশন বোর্ড অনুষ্ঠিত হয় ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে এবং সর্বশেষ রিজেন্ট বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারীতে। এরপর সেপ্টেম্বর হতে ছিলো না নিয়মিত উপাচার্য। ১১ মাস পর উপাচার্য পেলেও পদোন্নতি বঞ্চিত শিক্ষকরা পায়নি তাদের আপগ্রেডেশন।

শিক্ষক সমিতি প্রশাসনকে আগামী ৫ এপ্রিলের মধ্যে উপর্যুক্ত সমস্যা সমাধানের অনুরোধ জানায়। অন্যথায় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আগামী ৬ এপ্রিল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ২২ মার্চের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সভায়। উক্ত সভায় রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. হাসিবুর রহমানকে আহ্বায়ক ও ড. নিশীত কুমারকে সদস্য সচিব করে ৬ সদস্যের শিক্ষক ক্লাব পরিচালনার কমিটি গঠন করা হয়। অতি দ্রুত এ কমিটি ক্লাব পরিচালনার নীতিমালা প্রনয়ন করবেন।