বশেমুরবিপ্রবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

26
Print Friendly, PDF & Email

বশেমুরবিপ্রবি করসপন্ডেন্ট:
গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০২১ উদযাপিত হয়েছে।

স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে আলোচনা সভা, গোপালগঞ্জ শহরে শেখ কামাল স্টেডিয়াম সংলগ্ন স্মৃতিস্তম্ভ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনসমূহে আলোকসজ্জা করা হয় স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে। সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কিউ এম মাহবুবের নেতৃত্বে গোপালগঞ্জ শহরে অবস্থিত শেখ কামাল স্টেডিয়াম সংলগ্ন শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে এবং ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, অফিসার্স এসোসিয়েশন, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ, কর্মচারী সমিতি, সকল হল, বিভিন্ন বিভাগ, বিএনসিসি, রোভার স্কাউট, মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এরপর সাড়ে ১০টায় একাডেমিক ভবনের ৫০১ নম্বর কক্ষে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কিউ এম মাহবুবের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডের সদস্য ও বাংলাদেশ প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি এসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ কবির হোসেন।

প্রধান অতিথি শেখ কবির হোসেন তার বক্তৃতায় বলেন, আপনারা যে যেখানে আছেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করেন এবং তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে সহায়তা করেন। যদি আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ যথাযথভাবে ধারণ করতে পারি তাহলে বাংলাদেশ অচিরেই বিশ্বের অন্যতম উন্নত দেশে পরিণত হবে। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে তাঁর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে প্রস্তুত হও।

আলোচনা সভার সভাপতি ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ কিউ এম মাহবুব বলেন, মুজিব জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী একসাথে পালন করতে পারছি এটা আমাদের জন্য সৌভাগ্য। বঙ্গবন্ধু যে স্বাধীনতা আমাদের দিয়ে গেছেন ত্যাগ তিতিক্ষার মাধ্যমে তা আমরা রক্ষা করব। তিনি আরও বলেন, শিক্ষায়, কর্মে ও দায়িত্বে আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করব। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় থাকলে বাংলাদেশের অর্থনীতি শুধু এগোবে না, ভবিষ্যতে দৌড়াবে।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. এম, এ সাত্তার, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর রফিকুন্নেসা আলী, আইন অনুষদের ডিন মোঃ আব্দুল কুদ্দুস মিয়া, রেজিস্ট্রার মোঃ আব্দুর রউফ, প্রক্টর ড. মোঃ রাজিউর রহমান, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ আবু সালেহ, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মিরাজ সিকদার, কর্মচারী ইলা খান প্রমুখ। আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট মোঃ ফায়েকুজ্জামান মিয়া।