দেশে সাম্প্রদায়িক-সন্ত্রাসীদের কালো হাত ভেঙে দেয়া হবে: র‌্যাব ডিজি

18
Print Friendly, PDF & Email

হবিগঞ্জ থেকে করসপন্ডেন্ট:
র‌্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, দেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদের কালো হাত ভেঙে দেয়া হবে। বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। এখানে সবার সমান অধিকার রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কেউ যদি সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন করে তা সহ্য করা হবে না। এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়া হবে। কোনো জঙ্গি ও সন্ত্রাসীর ঠাঁই এ দেশে হবে না।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানি র‌্যাব-৯ এর হবিগঞ্জের সিপিসি-১ এর নতুন ইউনিটের উদ্বোধন শেষে সুনামগঞ্জের শাল্লা হরিপুরের নোয়াগাঁও গ্রামের ঘটনায় স্থানীয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের মহাপরিচালক এসব কথা বলেন।

চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে সিপিসি-১ এর নতুন ইউনিটের আনুষ্ঠানিকভাবে ফিতা কেটে অস্থায়ী ক্যাম্পের ভবনটি উদ্বোধন করেন। এ সময় র‌্যাব পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন শেষে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে র‌্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমাদের র‌্যাবের নতুন ইউনিট র‌্যাব-৯ এর সিপিসি-১ এর নতুন ইউনিট চালু করা হয়েছে। এই ইউনিট সব অপরাধ নিয়ন্ত্রণে কাজ করবে, র‌্যাবের অফিসার ও সদস্যরা অত্যন্ত সাফল্যের সঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি বলেন, র‌্যাব-৯ জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে বিশেষ ভূমিকা পালন করছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের ডিজি বলেন, সাগর-রুনী হত্যাকাণ্ডের মামলা গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

র‌্যাব-৯ এর মিডিয়া উইং ওবাইনের সঞ্চালনায় সিপিসি-১ এর কোম্পানি কমান্ডার (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ) কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন র‌্যাব-৯ এর সিও (কমান্ডার) লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবু মুসা শরীফুল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আজাদ হোসেন, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক ইসরাত জাহান, হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, কমান্ডেন্ট ইন সার্ভিসের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেমায়াতুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী, জেলা যুবলীগের সভাপতি ও হবিগঞ্জ পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আতাউর রহমান সেলিম, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবালসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা।