দেশের সব সেনানিবাসে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও শিশু দিবস উদযাপন

17
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্ট:
দেশের সব সেনানিবাসে যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০১তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

বুধবার (১৭ মার্চ) সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ঢাকা পুরাতন বিমানবন্দর এলাকায় ১০১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির অনুষ্ঠানমালার সূচনা করা হয়।

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পুস্পস্তবক অর্পন করে আন্তঃবাহিনী অনার গার্ড প্রদান করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উদযাপনে সেনাবাহিনীর সকল স্তরের সামরিক এবং অসামরিক ব্যক্তিদের অংশগ্রহণে সকল সেনানিবাসে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষে ঢাকাসহ সকল সেনানিবাসের প্রতিটি প্রবেশ পথ এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা সুসজ্জিত করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনাদর্শ, মহান মুক্তিযুদ্ধে তার ভূমিকা, দেশ গঠনে রাজনৈতিক অবদান ও বিভিন্ন উন্নয়নমূলক চিত্র তুলে ধরে সকল সেনানিবাসে বর্নাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়।

সেনাবাহিনীর সকল ইউনিট, প্রতিষ্ঠান এবং সদর দফতরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীর ওপর আলোচনা ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এছাড়াও সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত সকল স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনে আলোচনা অনুষ্ঠান, কুইজ, রচনা, বিতর্ক ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি ইত্যাদিসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ দিনে জাতির পিতার বিদেহি আত্মার মাগফিরাত কামনা করে সেনানিবাসগুলোর সকল মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়।