কুষ্টিয়ায় নার্সের পরিবর্তে উপজেলা চেয়ারম্যানের করোনা টিকা প্রদানে তোলপাড়

55
Print Friendly, PDF & Email

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, কুষ্টিয়া:
সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার বিভিন্ন উপজেলায় মহামারি করোনা প্রতিরোধে টিকা প্রদান উদ্বোধন করা হয়েছে। কুষ্টিয়া সদরসহ অন্যান্য উপজেলায় প্রশিক্ষিত নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা টিকা প্রদান করলেও জেলার কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান নিজেই টিকা প্রদান করে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন। বিষয়টি এলাকাজুড়ে চরম বিতর্কের সৃষ্টি করেছে।

উপজেলা চেয়ারম্যানের টিকা প্রদানের কয়েকটি ছবি ও একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিকেল থেকে ভাইরাল হতে থাকে। আর এতেই ব্যাপক সমালোচনা ও তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান কুমারখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বেলা ১১টার দিকে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কেন্দ্রে করোনা টিকা দেওয়া উদ্বোধন করেন কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জজ।

এ সময় সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক, নার্স ও স্বেচ্ছাসেবকেরা উপস্থিত ছিলেন। ভিডিও ফুটেজে স্পষ্ট দেখা যায়, উপজেলা চেয়ারম্যান সিরিঞ্জ হাতে নিয়ে তিনজনের শরীরে টিকা দিচ্ছেন। পাশে নার্স ও চিকিৎসকেরা তা ঠাই দাঁড়িয়ে দেখছিলেন। তিনজনকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের টিকা দেওয়ার ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে সমালোচনা ও বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

টিকা নেওয়া উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জানান, টিকা নেওয়ার আগ মূহুর্তে আমি যতটুকু দেখেছি একজন নার্স টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। টিকা আমার গায়ে পুশ করার আগ মূহুর্তে আমি অন্যদিকে তাকিয়ে ছিলাম। পরবর্তীতে ছবিতে দেখি উপজেলা চেয়ারম্যান সিরিঞ্জ হাতে টিকা পুশ করছেন।

তবে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আকুল উদ্দিনের দাবি ওই সময় তিনি ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তার অনুপস্থিতিতেই এই ঘটনা ঘটেছে।

কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম জানান, আমি এই ঘটনার ভিডিও দেখার পর উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলেছি। তিনি আমাকে বলছেন ফটোসেশনের জন্য তিনি এটি করেছেন। সিভিল সার্জন জানান, তিনি এটাও করতে পারেন না।

তবে বিষয়টি নিয়ে কুমারখালী উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল মান্নান খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।