বন্ধু দিবসে কবি বনে গেলেন অপূর্ব!

বিনোদন | অনলাইন ডেস্ক

15
Print Friendly, PDF & Email

অনেকেই বলেন, বন্ধুত্ব হচ্ছে প্রবল তৃষ্ণায় এক আঁজলা জলের মতো। বন্ধুকে বলা হয় আত্মার আত্মীয়। বলা হয়ে থাকে, অন্ধকারে একজন বন্ধুর সঙ্গে হাঁটা আলোতে একা হাঁটার চেয়ে শ্রেয়। আমাদের প্রত্যেকের জীবনেই বিশাল এক অংশ দখল করে আছে বন্ধুত্ব। বন্ধু হচ্ছে এমন একজন ব্যক্তি, যাকে যা ইচ্ছে বলা যায়, যার কাঁধে নিশ্চিন্তে মাথা রেখে নিরাপদ অনুভব করা যায়।

আজ বিশ্ব বন্ধু দিবস। বরাবরের মতো এ বছরও আগস্টের প্রথম রোববার বিশ্বব্যাপী পালিত হচ্ছে বন্ধু দিবস। মুঠোফোন আর সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে বেশির ভাগ একে অন্যকে অন্তর্জালেই শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। অনেকে দিচ্ছেন বিশেষ আড্ডা। ব্যক্তিগতভাবে চলছে নানা আয়োজন।

বন্ধু দিবসে অন্যদের মতো তারকারাও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। বাদ যাননি জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বও। ফেসবুকে দারুণ এক লেখা শেয়ার করেছেন। সঙ্গে দিয়েছেন নিজের দুর্দান্ত এক স্থিরচিত্র।

মনে হচ্ছে, অন্ত্যমিলেও দারুণ দক্ষ অভিনেতা অপূর্ব। বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা-গল্প মিস করছেন তিনি। লিখেছেন, ‘যখন আমি, তোদের ছাড়া বড় একা/ তখন আমার, বুকটা লাগে এত ফাঁকা/ বন্ধুরা সব কোথায় গেলি…/ আয় ফিরে আয় গল্প বলি…/ বন্ধুরা সব কোথায় গেলি/ আয় ফিরে আয় গল্প বলি।’

ভক্তরাও অপূর্বকে নানা মধুর কথায় বন্ধু দিবসের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন।