সরকারি চাকরিতে ৩০ শতাংশ কোটার দাবিতে ফের মাঠে নামবে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ

6
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
সরকারি সব চাকরিতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের জন্য ৩০ শতাংশ কোটা সংরক্ষণের দাবিতে ফের আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে ‘বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ’। আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর শাহবাগে এ দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবে সংগঠনটি।

শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদের ঢাকা বিভাগীয় সম্মেলনে এ আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা দেওয়া হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সোলায়মান মিয়া। প্রধান বক্তা ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব শফিকুল ইসলাম বাবু। সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিভাগীয় কমিটির আহ্বায়ক মামুনুর রশীদ হালদার।

বক্তারা বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছরেও আমাদের দাবি পূরণ হয়নি। দুই লাখ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আজও অবহেলিত। কুচক্রীদের চক্রান্তে বঙ্গবন্ধুর ঘোষিত ৩০ শতাংশ বাতিল হয়ে গেছে। আমরা সব ধরনের সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহাল চাই।’

তারা আরো বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিল করতে হলে সব কোঠা বাতিল করতে হবে। দেশে অন্য কোটায় চাকরি নিয়ে তারাই এখন মুক্তিযোদ্ধা কোটার বিরুদ্ধে কথা বলেন। দেশের ভিন্নমনা বুদ্ধিজীবী আর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা তাতে মদত দেয়। কিন্তু তারা পোষ্য কোটায় সন্তানদের পড়াশোনা-চাকরি করান।’

প্রসঙ্গত, সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতি-নাতনি ৩০ শতাংশ, প্রতিবন্ধী ১ শতাংশ, নারী ১০ শতাংশ, পশ্চাদপদ জেলাগুলোর জন্য ১০ শতাংশ, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ৫ শতাংশ মিলিয়ে শতকরা ৫৬ ভাগ কোটা পদ্ধতি চালু ছিল। কোটা সংস্কার আন্দোলনের পর সরকার এই কোটা পদ্ধতির সংস্কার, পরিমার্জন ও পরিবর্তন করে।