কোথায় দুর্নীতি হয় না, দোষ খুঁজলে, দোষ হতেই থাকবে: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

20
Print Friendly, PDF & Email

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, কুষ্টিয়া:
কুষ্টিয়ায় নদীখনন প্রকল্পের কাজ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চেয়েছেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক। এ সময়, সারাক্ষণ দোষ খুঁজতে থাকলে, দোষ হতেই থাকবে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘পজিটিভ রিপোর্ট দিয়ে যদি উৎসাহিত না করেন, তাহলে কীভাবে কাজ করব। আপনারা যদি আমাদের সহযোগিতা করেন, তাহলে আমরা দুর্নীতি নির্মূল করতে পারব। দুর্নীতিমুক্ত কাজ যাতে হয়, সে জন্যই তো দেখতে এসেছি।’

হরিপুর ইউনিয়নের শালদহ মহানগর টেক এলাকার গড়াই নদীতে খনন প্রকল্পে বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের কোথায় দুর্নীতি হয় না? সব জায়গায় দুর্নীতি আছে। দুর্নীতিটা অ্যাডিকশনের মতো হয়ে গেছে। তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দুর্নীতির ব্যাপারে জিরো টলারেন্স।’

গড়াই নদী খনন এবং এর পার সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৬০০ কোটি টাকার কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)। এ বছর কাজের তৃতীয় ও শেষ বছর।

তবে এই কাজে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন কুষ্টিয়ার সচেতন নাগরিকরা। এর আগে মানববন্ধনও করেছে বিভিন্ন সংগঠন।

কুষ্টিয়া সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি রফিকুল আলম টুকু বলেন, ‘খননের এত টাকার কাজ হয়, কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয় না। সব টাকাই জলে যাচ্ছে। নদী যেমন ছিল, তেমনি রয়ে গেছে, বরং আরও ভরাট হয়েছে।’

এসব বিষয়ে প্রশ্ন করলে প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেন, ‘আপনারা যদি আগেই দোষ খোঁজেন, তাহলে আমরা কোথায় যাব?’

এ সময় পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও পাউবোর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।