কাজের মাধ্যমে প্রমাণ করে দেবো- চট্টগ্রামের মেয়র কি জিনিস

13
Print Friendly, PDF & Email

ডিস্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, চট্টগ্রামঃ
নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার বক্তব্য ‘অর্বাচীন বালকের প্রলাপ’ বলে মন্তব্য করেছেন নবনির্বাচিত চসিক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরী। রোববার (৩১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নগরের বহদ্দারহাটে নিজ বাসভবনের সামনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, ‘আমাকে কে কি বললো- তা নিয়ে একদম মাথাব্যথা নাই। এটা হলো অর্বাচীন বালকের প্রলাপ, আর কিছু না। কে কি বলছে, সেটা তার ব্যাপার। গালি দেওয়ার দরকার নাই। কাজের মাধ্যমে প্রমাণ করে দেবো- চট্টগ্রামের মেয়র কি জিনিস’।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই কাদের মির্জার মন্তব্যের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, আমি রাজনীতি করছি ১৯৬৬ সাল থেকে। এই দীর্ঘ জীবনে ৬ দফা আন্দোলন থেকে শুরু করে সব আন্দোলনে আমি জড়িত ছিলাম। এতে আমার অনেক অভিজ্ঞতা সঞ্চয় হয়েছে। এরকম অনেক কিছু আমি দেখেছি। অনেকে অনেক কথা বলেছে, দাঁড়িয়ে গালিগালাজ করেছে।

প্রসঙ্গত: গত ২৭ জানুয়ারি বসুরহাটে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, ‘চট্টগ্রামের নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। কিসের সুষ্ঠু হয়েছে? মায়ের বুক খালি হয়েছে। সেখানে জোর করে ইভিএম ব্যবহার করে একজন প্রার্থীর পক্ষে ভোট নিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর সংগঠন আওয়ামী লীগ আজকে পথহারা। চট্টগ্রামের নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি, রক্তপাত হয়েছে। এটি কি মেনে নেওয়া যায়? আপনি মানুষের চোখে ধুলা দিয়ে কতদিন টিকে থাকবেন। এটি চলতে পারে না। আজকে বাংলাদেশে নির্বাচন ব্যবস্থার পরিবর্তন করতে পারে একমাত্র শেখ হাসিনা’।

এ প্রসঙ্গে রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর আমরা চুপ ছিলাম। আমাদের ভেতর একটা প্রতিজ্ঞা ছিল- এই গালির প্রতিশোধ কাউকে থাপ্পড় দিয়ে নেবো না। আমরা কাজের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে আবার প্রতিষ্ঠিত করে, আওয়ামী লীগকে প্রতিষ্ঠিত করে, বঙ্গবন্ধুর রাজনীতিকে প্রতিষ্ঠিত করে তাদেরকে জবাব দেবো। আজ আমরা জবাব দিয়েছি। বঙ্গবন্ধুর রাজনীতিও প্রতিষ্ঠিত, আওয়ামী লীগও প্রতিষ্ঠিত।