মিয়ানমারঃ বন্ধ করা হয়েছে সকল সরকারি টেলিভিশন-রেডিওর সম্প্রচার

13
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক রিপোর্টঃ
মিয়ানমারের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চি এবং দেশটির প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টকে আটক করেছে সেনাবাহিনী। সরকারি দলের মুখপাত্র ড. মিও নিয়ুন্ট গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এই দুই নেতা ছাড়াও বেসামরিক সরকারের আরও কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় সকালে তাদেরকে আটকের পর প্রশাসনিক রাজধানী নাইপিদোতে মোবাইল ফোন ও রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এবং রেডিওর প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেয়া পোস্টে মিয়ানমার রেডিও এবং টেলিভিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘বর্তমান পরিস্থিতির কারণে আমরা আপনাদের জানাতে চাই যে, এমআরটিভি এবং মিয়ানমার রেডিওর সম্প্রচার চালানো সম্ভব হচ্ছে না।’

এর আগে গত সপ্তাহে ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল ডেমোক্রেসি লিগ (এনএলডি) সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিল দেশটির সেনাবাহিনী। গত বছরের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে এ হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছিল। ওই নির্বাচনে ব্যাপক ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছিল এনএলডি।

এ বিষয়ে সরকারি দলের মুখপাত্র মিও নিয়ুন্ট গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এটি একটি সামরিক অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা। কিন্তু তারা (সেনাবাহিনী) চাইলে ক্ষমতা হস্তান্তরের জন্য প্রেসিডেন্টকে জরুরি জাতীয় নিরাপত্তা সভা ডাকতে বাধ্য করে এটা অস্বীকার করতে পারেন।’

দেশটির সংবিধান অনুযায়ী, কেবলমাত্র প্রেসিডেন্টই জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে সেনাবাহিনীর কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে পারেন। বর্তমানে শুধুমাত্র সেনাবাহিনী পরিচালিত মায়াবতি চ্যানেলের সম্প্রচার চালু আছে। আর নির্দিষ্ট এলাকা বাদে বন্ধ রয়েছে মোবাইল ফোন পরিষেবাও।