এবার ডেঙ্গু জ্বরে মারা গেল মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল ছাত্র, ছোট বোনও হাসপাতালে

483
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৬ষ্ঠ শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থী রাইয়ান সরকার (১১) স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে।
আজ দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উদিয়মান শিশু শিক্ষার্থী রায়হান লাইফ সাপোর্টে থাকাবস্থায় ৬দিনের সকল চিকিৎসা প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে না ফেরার দেশে চলে যায়।

আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বক্তব্য দেন অধ্যক্ষ লে. কর্ণেল কাজী শরীফ উদ্দিন, পাশে উপাধ্যক্ষ জহিরুল ইসলাম।

তার ছোট বোন তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী মালিহা সরকারও (৬) ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে স্কয়ার হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে তার অবস্থা আশংকা মুক্ত বলে জানিয়েছেন তার পিতা মমিন সরকার।

এদিকে, দুপুরে রায়হানের মৃত্যুর এ নির্মম সংবাদ স্কুল কর্তৃপক্ষ ও সহপাঠী এবং অভিভাবকদের নিকট পৌঁছুলে শোকের ছায়া নেমে আসে। সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ তাদের ফেসবুক পেইজে মৃত্যুতে গভীর শোক, সমবেদনা ও দুঃখ প্রকাশ করে খবরটি প্রচার করেন। বাদ মাগরিব রাইয়ানের পরম প্রিয় স্কুল আঙিনাতেই জানাজার নামাজের আয়োজন করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান অধ্যক্ষ লে. কর্ণেল কাজী শরীফ উদ্দীন।

এতে রায়হানের পিতা, আত্মীয়-স্বজন, সহপাঠী, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও বিভিন্ন পর্যায়ের বিপুলসংখ্যক অভিভাবক বেদনাবিধুর পরিবেশের এ জানাজায় উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বক্তব্যে আবেগাপ্লুত কণ্ঠে সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ লে. কর্ণেল কাজী শরীফ উদ্দীন সকলের নিকট তার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ডালিয়া শাখার মেধাবী এ ছাত্রের জন্য দোয়া কামনা করেন। নিজ নিজ আঙিনা পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি সকলকে সচেতনতার আহবানও জানান তিনি।

এছাড়া বক্তব্যদেন, উপাধক্ষ্য জহিরুল ইসলাম ও ছাত্রের শোকাভিভূত পিতা এসিআই কোম্পানির জোনাল সেলস ম্যানেজার মমিন সরকার। লেখাপড়া শিখে আর্দশ মানুষ ও সুনাগরিক হতে চেয়েছিল তার ছেলে, কিন্তু ডেঙ্গু জ্বরে মৃত্যু তাদের সবকিছুই শেষ করে দিল। আদর্শ এ স্কুলে ছেলের নানান স্মৃতি চারণ করে কান্নায় ভেঙে পড়েন সদ্য সন্তানহারা পিতা মমিন সরকার। বলেন, এই স্কুলে, এই দেশের এমনকি বিশ্বের আর যেনো কোন পিতামাতাকে সন্তানহারা না হতে হয়। এ মরনব্যাধি ডেঙ্গুর প্রকোপ থেকে বাঁচতে অভিভাবকসহ সকল মহলের সর্তক ও সচেতন থাকারও আহবান জানান তিনি।

জানাজা শুরুর প্রাক্কালে সমবেতদের উদ্দেশ্যে কথা বলছেন অধ্যক্ষ

রাত ৯ টায় (বাদ এশা) তেজগাঁওস্থ রহিম মেটাল জামে মসজিদে দ্বিতীয় জানাজার নামাজ শেষে রাজধানীতেই রায়হানকে দাফন করা হয়।

গত ২৮ জুলাই থেকে সে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়ার পর নানা ধরনের প্রক্রিয়া এবং হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ৩১ জুলাই স্কয়ার হাসপাতালে ছেলেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয় বলে জানিয়েছেন রায়হানের পিতা মমিন সরকার। অবস্থার অবনতি হলে ১ আগষ্টে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এতেও শেষ রক্ষা হয়নি তার।

জানাজা শেষে রায়হানের নিথর শরীর বহনকারী এ্যাম্বুলেন্স।

এদিকে, সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৬ ষ্ঠ শ্রেণির মেধাবী শিশু শিক্ষার্থীর এ মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির গর্ভনিং বডির সভাপতি ও সুযোগ্য শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসেন। এসময় শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনাও জানান তিনি।

অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১ হাজার ৬৮৭ জন, মোট চিকিৎসাধীন ৬ হাজার ৫৮২ জন।

১ জানুয়ারি থেকে ২ আগষ্ট পর্যন্ত আক্রান্ত ২১ হাজার ২৩৫ জন।