শীতের দাপটে ভোগান্তি ও বিপর্যস্ত নওগাঁর জনজীবন

7
Print Friendly, PDF & Email

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, নওগাঁ:
ঘন কুয়াশার সঙ্গে উত্তরের হিম বাতাসে নওগাঁয় মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে। বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। কয়েক দিন ধরে কিছুক্ষণের জন্য রোদের দেখা মিললেও হিম বাতাসের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উত্তাপ ছড়াতে পারছে না সূর্য। এ কারণে দিনভর শীতে জবুথবু থাকতে হচ্ছে।

নওগাঁ শহরের মুক্তির মোড় এলাকায় রোববার (৩১ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় দিকে কথা হয় রিকশাচালক ছমিজ মিয়ার সঙ্গে। তিনি বলেন, ঠান্ডার কারণে হাত-পা অবশ হয়ে যাচ্ছে। ঠান্ডার জন্য হাত দিয়ে রিকশার হ্যান্ডেল ঠিকমতো ধরতে পারছি না। রিকশা চালানো কঠিন হয়ে পড়ছে।

এদিকে, শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে বেড়েছে শিশু ও বয়স্ক রোগের প্রকোপ। নওগাঁ সদর হাসপাতালের সিনিয়র নার্স কোহিনুর সুলতানা জানান, হঠাৎ রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় সেবা দিতে কিছুটা হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের।

নওগাঁর বদলগাছি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা ফেরদৌস মাহমুদ বলেন, রোববার সকাল ৬টায় নওগাঁয় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ২ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তিন-চার দিন ধরে সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রার ব্যবধান কমে যাওয়ায় তীব্র শীত অনুভূত হচ্ছে। ঘন কুয়াশার সঙ্গে উত্তরের হিমেল বাতাস প্রবাহিত হওয়ায় সোমবার থেকেই তাপমাত্রা নিম্নমুখী হতে শুরু করে। এর আগে বুধবার নওগাঁয় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।