পৌরসভা নির্বাচনে যেখানে, যে জয়ী হলেন

13
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
সংঘর্ষ, গোলাগুলি, কেন্দ্র দখল, প্রার্থীর ভোট বর্জন ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে তৃতীয় ধাপে ৬২ পৌরসভার ভোটগ্রহণ। তবে কোথাও কোথাও শান্তিপূর্ণ ও দীর্ঘলাইনে দাঁড়িয়ে ভোটারদের ভোট দিতেও দেখা গেছে। আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হয়। এরপর কেন্দ্রে কেন্দ্রে প্রার্থীদের এজেন্টদের উপস্থিতিতে ভোট গণনা শুরু হয়।

এরই মধ্যে ৪১টি পৌরসভায় মেয়র পদের ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ২৯টিতেই বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা। জয়ী মেয়র পদপ্রার্থীরা হলেন দিনাজপুরের হাকিমপুরে এন এম এম জামিল হোসেন চলন্ত, কুড়িগ্রামের উলিপুরে মামুন সরকার মিঠু, বগুড়ার শিবগঞ্জে তৌহিদুর রহমান মানিক ও নন্দিগ্রামে মো. আনিছুর রহমান, নওগাঁর ধামইরহাটে মো. আমিনুর রহমান, রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কেশরহাটে মো. শহিদুজ্জামান, নাটোরের সিংড়ায় মো. জান্নাতুল ফেরদৌস, চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় মো. মতিয়ার রহমান, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে মো. ফারুক হোসেন, যশোরের মনিরামপুরে কাজী মাহমুদুল হাসান, নড়াইল সদরে আঞ্জুমান আরা ও কালিয়ায় মো. ওয়াহিদুজ্জামান (হীরা), সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মো. মনিরুজ্জামান, বরগুনা সদরে মো. কামরুল আহসান (মহারাজ), ভোলার বোরহানউদ্দিনে মো. রফিকুল ইসলাম ও দৌলতখানে মো. জাকির হোসেন, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে কামাল উদ্দিন খান, ঝালকাঠির নলছিটিতে আবদুল ওয়াহেদ খান, শরীয়তপুরের নড়িয়ায় আবুল কালাম আজাদ, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভায় হাজি মোহাম্মদ ফয়সাল বিপ্লব, শেরপুরের নকলায় মো. হাফিজুর রহমান ও নালিতাবাড়ীতে মো. আবু বক্কর সিদ্দিক, ময়মনসিংহের ভালুকায় এ কে এম মেজবাহ উদ্দিন, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে মো. শওকত উসমান, মৌলভীবাজারে মো. ফজলুর রহমান, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে আ স ম মাহবুব উল আলম, ফেনী সদরে নজরুল ইসলাম স্বপন, নোয়াখালীর হাতিয়ায় কে এম ওবায়েদ উল্যাহ ও লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে আবুল খায়ের পাটওয়ারী।

তিনটি পৌরসভায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা। তাঁরা হলেন বগুড়ার গাবতলীতে মো. সাইফুল ইসলাম ও কাহালুতে মো. আব্দুল মান্নান এবং নওগাঁ পৌরসভায় মো. নজমুল হক।

বগুড়ার ধুনটে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র পদপ্রার্থী এ জি এম বাদশাহ, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে মো. মুকিতুর রহমান (রাফি), ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে মো. সহিদুজ্জামান, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে আবুল বাশার চোকদার ও জাজিরায় মো. ইদ্রিস আলী মাদবর, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে মো. আবদুস ছাত্তার, সিলেটের গোলাপগঞ্জে মো. আমিনুল ইসলাম ও জকিগঞ্জে আবদুল আহাদ এবং নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে মো. খালেদ সাইফুল্লাহ মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া কিশোরগঞ্জ পৌরসভায় স্থগিত থাকা একটি কেন্দ্রে আজ ভোটগ্রহণ করা হয়। ওই কেন্দ্রের ফলসহ মোট ভোটে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. পারভেজ মিয়া আবার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

আজ যে ৬২ পৌরসভায় ভোট:
দিনাজপুরের হাকিমপুর, নীলফামারীর জলঢাকা, কুড়িগ্রামের উলিপুর, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ, বগুড়ার ধুনট, শিবগঞ্জ, গাবতলী, কাহালু ও নন্দীগ্রাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর, নওগাঁর ধামইরহাট ও নওগাঁ, রাজশাহীর কেশরহাট ও মুণ্ডুমালা, নাটোরের সিংড়া, পাবনা সদর, চুয়াডাঙ্গার দর্শনা, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু ও কোটচাঁদপুর, যশোরের মনিরামপুর, নড়াইল সদর ও কালিয়া, খুলনার পাইকগাছা, সাতক্ষীরার কলারোয়া, বরগুনা সদর ও পাথরঘাটা, ভোলার বোরহানউদ্দিন ও দৌলতখান, বরিশালের গৌরনদী ও মেহেন্দিগঞ্জ, ঝালকাঠির নলছিটি, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠী, টাঙ্গাইলের সদর, মির্জাপুর, ভূঞাপুর, সখিপুর ও মধুপুর, জামালপুরের সরিষাবাড়ী, শেরপুরের নকলা ও নালিতাবাড়ী, ময়মনসিংহের ভালুকা, গৌরীপুর ও ঈশ্বরগঞ্জ, নেত্রকোনার দুর্গাপুর, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী, মুন্সীগঞ্জ সদর, রাজবাড়ীর পাংশা, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া, শরীয়তপুরের নড়িয়া, ভেদরগঞ্জ ও জাজিরা, সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও জকিগঞ্জ, মৌলভীবাজার সদর, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম ও বরুড়া, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ, ফেনী সদর, নোয়াখালীর হাতিয়া ও চৌমুহনী এবং লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভা।

ভোট নেওয়ার আগেই বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে আওয়ামী লীগের এস এম মনিরুল হক তালুকদার, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় শেখ তোজাম্মেল হক টুটুল ও কুমিল্লার লাকসামে আওয়ামী লীগের অধ্যাপক মো. আবুল খায়ের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।