ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে বাংলাদেশের কন্টিনজেন্ট

8
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
আজ ভারতের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবস। এই প্রথম ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লির রাজপথে কুচকাওয়াজে অংশ নিলেন বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর ১২২ সদস্য। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান জানিয়ে মঙ্গলবার দিল্লির রাজপথে কুচকাওয়াজে অংশ নেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর পাশাপাশি এদিন দিল্লির রাজপথে বাংলাদেশের সেনা সদস্যদের মার্চপাস্ট আলাদা নজর কেড়েছে।

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে এদিন সকালে দিল্লির ইন্ডিয়া গেটে অবস্থিত ওয়ার মেমোরিয়ালে শ্রদ্ধার্ঘ জানিয়ে পরম্পরা মেনে ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ভারতের তিন বাহিনীর প্রধানও। তবে এ বছর কোভিড-১৯ বিধিনিষেধের কারণে অন্যান্যবার যেখানে প্যারেড ও কুচকাওয়াজ দেখতে প্রায় এক লাখ লোকের উপস্থিতি থাকত এবারে সেখানে তা কমিয়ে মাত্রা ২৫ হাজার করে দেওয়া হয়। কমানো হয় প্যারেডে অংশ নেওয়া জওয়ানদের সংখ্যাও।

এবারের প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে এই প্রথমবার ছিল সিআরপিএফ ট্যাবলো। এদিন সকালে প্রায় শূন্য দর্শক নিয়ে শুরু হয় দিল্লির কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান। বিশেষ জামনগরের পাগড়ি পরে কুচকাওয়াজে অংশ নেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। জানা যায়, এই পাগড়িটি মোদিকে উপহার দেন গুজরাটের জামনগরের রাজপরিবার। এদিন প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে মোদির পরনে ছিল লাল পাগড়ি, সাদা পাঞ্জাবি ও একটি ছাই রঙের জহর কোট। কাঁধে ছিল ক্রিম রঙের চাদর।

এবারে প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে মোট ৩২টি ট্যাবলো প্যারেডে অংশ নেয়। ভারতের বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল থেকে ১৭টি ট্যাবলো, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের তরফে নয়টি এবং প্রতিরক্ষা বিভাগের তরফে ছয়টি ট্যাবলো অংশ নেয়। এদিন এক ভিডিওবার্তায় ভারতের সংবিধানের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

কুচকাওয়াজে রাফাল যুদ্ধবিমান ওড়ান ভারতীয় বায়ুসেনার প্রথম নারী পাইলট ভাবনা কান্ত। এদিন কুচকাওয়াজে ভারতীয় সেনাবাহিনী ট্যাংক টি-৯০ ট্যাংক, ব্রহ্মস ক্ষেপণাস্ত্র, পিনাকা রকেট সিস্টেমসহ অন্যান্য যুদ্ধাস্ত্র প্রদর্শন করে। রাজধানী দিল্লির পাশাপাশি কলকাতাসহ ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে পালিত হয় প্রজাতন্ত্র দিবস।