ক্যারিবিয়দের দ্বিতীয়বার ধবলধোলাইয়ের লজ্জা দিল টাইগাররা

24
চট্টগ্রামে টিম বাংলাদেশের দারুণ জয়। ছবি : বিসিবি
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস অনলাইন রিপোর্ট:
সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতেও নূন্যতম লড়াই করতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয়বার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াটওয়াশ (ধবলধোলাই) করল টাইগাররা। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শেষ ওয়ানডেতে ১২০ রানে হারিয়ে ৩-০’তে সিরিজ নিজেদের করে নিল টিম টাইগার। ২৯৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৭৭ রানে গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। এই সিরিজ জয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্বিতীয়বার এবং সবমিলিয়ে প্রতিপক্ষকে ১৪তম বারের মতো হোয়াইটওয়াশ করার কীর্তি দেখাল বাংলাদেশ।

শেষ ওয়ানডেতে টস হেরে শুরুতে ব্যাট করে ২৯৮ রানের বড় টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় ক্যারিবিয়রা। বাংলাদেশের হয়ে শুরুতেই ব্রেক থ্রু এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। মাত্র ১ রান করে উইকেটের পেছনে মুশফিকুর রহীমকে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন তিনি। এরপর সুনীল অ্যামব্রিসকে এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে ফেলেন মোস্তাফিজ। আমিব্রিসের ব্যাট থেকে আসে ১৩ রান। ব্যক্তিগত ১১ রানে মায়ার্স ফিরে গেছেন মিরাজের ঘূর্ণি জাদুতে।

মিডল অর্ডারেও ক্যারিবিয়দের কোনো ব্যাটসম্যান বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। ১০০ রানের আগেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে উইন্ডিজ দল। তবে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন পাওয়েল। কিন্তু ৪৭ রান করা এই ব্যাটসম্যানকে ফেরান সৌম্য সরকার। তবে লোয়ার অর্ডারের ব্যর্থতায় ১৭৭ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীরা।

বাংলাদেশের হয়ে সাইফুদ্দিন নেন ৩টি উইকেট। মোস্তাফিজ ও মিরাজ নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। এছাড়া ১টি করে উইকেট শিকার করেছেন তাসকিন ও সৌম্য সরকার।

এর আগে, সিনিয়র ক্রিকেটারদের ব্যাটিং দৃঢ়তায় লড়াকু পুঁজি পায় বাংলাদেশ। দলের হয়ে চার সিনিয়র ব্যাটসম্যান তুলে নেন হাফসেঞ্চুরি। একে একে ফিফটি হাঁকান তামিম, সাকিব, মাহমুদউল্লাহ আর মুশফিক। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ফিফটি তুলে নেন তামিম ইকবাল। তার ব্যাট থেকে আসে ৬২ রান। তামিমকে যোগ সঙ্গ দিয়ে বছরের প্রথম ফিফটি তুলে সাকিবও। তিনি করেন ৫১ রান। তামিম-সাকিব ফিরে গেলেও এদিন রানে চাকা সচল রাখেন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ। মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ৫৫ বল থেকে ৬৪ রান। মাহমুদউল্লাহ অপরাজিত থাকেন ৪৩ বলে ৬৪ রানে।

ব্যাটে-বলে দারুণ পারফরমেন্স করা সাকিব আল হাসান ম্যান অব দ্য সিরিজ নির্বাচিত হয়েছেন।

এই সিরিজ জয়ে ওয়ানডে সুপার লিগের পুরো ৩০ পয়েন্ট পেল তামিম ইকবালের দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বাংলাদেশ : ৫০ ওভারে (তামিম ৬৪, লিটন ০, শান্ত ২০, সাকিব ৫১, মুশফিক ৬৪, মাহমুদউল্লাহ ৬৪, সৌম্য ৭, সাইফউদ্দিন ৫ ; মেয়ার্স ৭-০-৩৪-১, জোসেফ ১০-০-৪৭-২, আকিল ১০-০-৪৬-০ , জেসন ৩-০-১৬-০, হার্ডিং ৯-০-৬৬-০, রেমন ১০-০-৬১-২)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ : ৪৪.২ ওভারে ১৭৭/১০ (কিওর্ন ১, সুনীল ১৩, বোনের ৩১, জেসন ১৭, মেয়ার্স ১১, হ্যামিল্টন ৫, রেমন ২৭, আলজারি ১১, আকিল ০, হার্ডিং ১* ; মুস্তাফিজ ৬-০-২৪-২, তাসকিন ৮.২-১-৩২-১, মিরাজ ১০-২-১৮-২, সাকিব ৪.৫-০-১২-০, সাইফউদ্দিন ৯-০-৫১-৩, সৌম্য ৩.১-০-২২-১)।

ফল: বাংলাদেশ ১২০ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: মুশফিকুর রহিম।

ম্যান অব দ্য সিরিজ: সাকিব আল হাসান।

সিরিজ: ৩-০ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ।