বাইডেনের শপথের আদ্যপান্ত

2
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন আজ বুধবার। এ উপলক্ষে প্রতিবারের মতো আয়োজন থাকছে। তবে মহামারি করোনা ও নিরাপত্তাজনিত কারণে বিপুল গণসমাগম হচ্ছে না এবার। সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজ এ খবর জানিয়েছে।

সামাজিক দূরত্ব মেনে ইতিহাসের সবচেয়ে কম সংখ্যক লোকজন নিয়ে ওয়াশিংটনের ইউএস ক্যাপিটলে শপথ অনুষ্ঠান হতে যাচ্ছে। গত ৬ জানুয়ারি কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলার পর ক্যাপিটল ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

গণজমায়েত না হলেও তারকার উপস্থিতিতে উজ্জ্বল থাকবে বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান। ট্রাম্পের শপথে গতবার টবি কেইথ ও লি গ্রিনউডের মতো তারকারা হাজির হন। এবার বাইডেনকে স্বাগত জানাতে আসছেন পপ তারকা লেডি গাগা, জেনিফার লোপেজ, ব্রুস স্প্রিংস্টিন ও গ্যার্থ ব্রুসের মতো লোকেরা।

শপথ কখন?

ঠিক কয়টায় শপথ অনুষ্ঠান হবে সে ঘোষণা দেওয়া হয়নি। তবে বুধবার ওয়াশিংটনের ইউএস ক্যাপিটলের পশ্চিম চত্বরে স্থানীয় সময় সকাল ১১টা অর্থাৎ বাংলাদেশ সময় রাত ১০টার দিকেই শপথ অনুষ্ঠান শুরু হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

শপথের পর জাতির উদ্দেশে উদ্বোধনী ভাষণ দেবেন প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্ট। মহামারির করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে আজ রাতে অভিষেক পার্টি হবে না। এর পরিবর্তে ‘সেলেব্রেটিং আমেরিকা’ টিভি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন প্রেসিডেন্ট।

কে পড়াবেন শপথবাক্য?

প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনকে শপথবাক্য পাঠ করাবেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারক জন রবার্টস। ঘড়ির কাটা ১২টা ছোঁয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্ত্রী জিল বাইডেনের হাতের ওপর পাঁচ ইঞ্চি মোটা পারিবারিক বাইবেলে হাত রেখে শপথবাক্য পড়বেন জো বাইডেন।

প্রথম নারী, কৃষ্ণাঙ্গ ও দক্ষিণ এশিয়ান আমেরিকান হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন কমলা হ্যারিস। তাঁকে শপথবাক্য পড়াবেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারক সোনিয়া সোটোমেয়র। এক সময় তিনিও কমলা হ্যারিসের মতো আইনজীবী ছিলেন। ২০১৩ সালে জো বাইডেনকে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ পড়ান সোটোমেয়র।

শুরুতে সম্ভাষণ জানাবেন বাইডেন পরিবারের ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিত্ব জর্জটাউন ইউনিভার্সিটির সাবেক প্রেসিডেন্ট লিও জে ও’ ডোনোভ্যান। এরপর প্রথম কোনো আফ্রিকান আমেরিকান হিসেবে সংহতি বাক্য পাঠ করবেন নারী ফায়ার ফাইটার আন্দ্রে হল।

শপথ শেষে প্যারেড করে হোয়াইট হাউসের দিকে এগিয়ে যাবেন বাইডেন ও হ্যারিস। এ সময় তাঁদের সঙ্গে থাকবেন ফার্স্ট লেডি ও সেকেন্ড জেন্টলম্যান।

অতিথি কারা?

অভিষেক কমিটি প্রতিবার প্রায় দুই লাখ টিকেটের ব্যবস্থা করে। কিন্তু করোনার কারণে এবার তা হাজার খানেক হতে পারে।

প্রতিবারের মতো শপথ অনুষ্ঠান আলোকিত করবেন সাবেক প্রেসিডেন্টেরা। বারাক ওবামা, জর্জ ডব্লিউ বুশ ও বিল ক্লিনটন থাকছেন বলে জানা গেছে। সঙ্গে থাকছেন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা, লরা বুশ ও হিলারি ক্লিনটনও। তবে এবার বয়োজ্যেষ্ঠ সাবেক প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার ও ফার্স্ট লেডি রোজালিন কার্টার থাকতে পারছেন না। ১৯৭৭ সালে নিজে শপথ নেওয়ার পর এবারই তিনি এই অনুষ্ঠানে গরহাজির থাকছেন। তবে বাইডেনকে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়ে দিয়েছেন তাঁরা।  

এ ছাড়া কংগ্রেসের উভয় কক্ষ—হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস ও সিনেটের বেশির ভাগ সদস্য এবং সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের সবাইকেই অনুষ্ঠানে দেখা যেতে পারে।

বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাঁর স্থলাভিষিক্তকে অভিবাদন জানাতে আসছেন না। ১৫২ বছর পর বিদায়ী প্রেসিডেন্ট হিসেবে নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠান এড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ট্রাম্প। তবে বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স আসছেন।

প্রেসিডেন্টের ভাষণের প্রতিপাদ্য

উদ্বোধনী ভাষণে ‘আমেরিকা ইউনাইটেড’ প্রতিপাদ্য থাকবে বলে জানা গেছে। পাশাপাশি মহামারি থেকে সেরে ওঠার বিষয়েও দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেবেন বাইডেন। রোববার থেকে পরিবারের সদস্য ও জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা মাইক ডোনিলোনের সঙ্গে ভাষণ নিয়ে কাজ করছেন জো বাইডেন।

‘সেলেব্রেটিং আমেরিকা’

অভিষেক উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতীয় সঙ্গীত গাইবেন পপ শিল্পী লেডি গাগা। পরে তরুণ কবি হিসেবে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত আমান্ডা গোরম্যান একটি কবিতা পাঠ করবেন। বাইডেনের সঙ্গে একটা জায়গায় বেশ মিল রয়েছে তরুণী গোরম্যানের। বাইডেনের মতো গোরম্যানেরও তোতলামি ছিল। অনেক কষ্টে দুজনেই তা কাটিয়ে ওঠেন।

কবিতা পাঠের পর থাকছে জেনিফার লোপেজের জমকালো পারফরম্যান্স। ওবামার অভিষেক অনুষ্ঠানে গান করা গ্যার্থ ব্রুকসও এবার মঞ্চ মাতাবেন। এ ছাড়া মঞ্চ মাতাবেন ফু ফাইটারস, জন লিজেন্ড, জন বোন জোভি, জাস্টিন টিম্বারলেক, ডেমি লোভাটো, অ্যান্ট ক্লেমনস, লিন-ম্যানুয়েল মিরান্ডা, টিম ম্যাকগ্রা ও টেইলর হাবার্ড।

এরপর প্রার্থনায় নেতৃত্ব দেবেন বাইডেন পরিবারের দীর্ঘদিনের বন্ধু যাজক সিলভেস্টার বিম্যান।

৯০ মিনিটের সেলেব্রেটিং আমেরিকা অনুষ্ঠানটির উপস্থানায় রয়েছেন একাডেমি অ্যাওয়ার্ড পাওয়া অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস।

সম্প্রচার

যুক্তরাষ্ট্রের এবিসি, সিবিএস, সিএনএন, এনবিসি ও এমএসএনবিসি এবং প্রেসিডেন্টের অভিষেক কমিটির ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটার ও টুইচ অ্যাকাউন্টে আজ বুধবার রাত সাড়ে ৮টায় দেখা যাবে ‘সেলেব্রেটিং আমেরিকা’ অনুষ্ঠানটি।

কী করছেন ট্রাম্প

বুধবার সকালে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হোয়াইট হাউস ছাড়ার কথা রয়েছে। রাষ্ট্রীয় বিমানে শেষ ট্রিপে ফ্লোরিডায় নিজের রিসোর্ট মার-আ-লাগো’য় যাবেন ট্রাম্প। বাইডেনের শপথের আগেই গন্তব্যে পৌঁছে যেতে পারেন তিনি।

এনবিসি নিউজ জানায়, ঐতিহ্য অনুযায়ী, ট্রাম্পকে রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে শেষবারের মতো লাল গালিচা সংবর্ধনা ও ২১ বন্দুকের তোপধ্বনিতে সম্ভাষণের প্রস্তুতি চলছে।