‘সাংবাদিকতা ও পুলিশের চাকরি দুটিই ঝুঁকিপূর্ণ’

27
Print Friendly, PDF & Email

স্পেশাল করসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
সাংবাদিকতা ও পুলিশের চাকরি দুটিই ঝুঁকিপূর্ণ পেশা মন্তব্য করে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ঝুঁকি মাথায় নিয়েই এই পেশার মানুষেরা কাজ করেন।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সাংবাদিক আব্দুস সালাম মিলনায়তনে ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোশিয়েশনের (ক্র্যাব) গ্রুপ জীবন বীমার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন ডিএমপি কমিশনার।

তিনি বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের দর্পন হিসেবে কাজ করেন। সাহসের সঙ্গে তারা সমাজের অন্যায়, অনিয়ম তুলে ধরেন। সাংবাদিক ও পুলিশের কাজের ধরণ একই। আমাদের কোন কর্মঘন্টা নেই। চকবাজারে আগুন, এফআর টাওয়ারে আগুন, কোটা আন্দোলনসহ অন্য যেকোন আন্দোলনে পুলিশ, সাংবাদিক ও ফায়ার সার্ভিসের লোকদের পাওয়া যায়। এমন কাজ করতে গিয়ে কর্তব্যরত অবস্থায় আমাদের অনেক সদস্য মারাও যায়। কিছুদিন আগে যাত্রাবাড়ীতে আমাদের এক ট্রাফিক সদস্য কর্তব্যরত অবস্থায় মারা যায়। এই দুই পেশার লোক জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করে থাকে। কিন্তু দায়িত্ব পালনকালে তাদের কেউ মারা গেলে পরিবারের জন্য তেমন কোন সহায়তা পায় না বিধায় সাংবাদিকতা পেশায় জীবন বীমা অত্যন্ত যুগোপযোগী উদ্যোগ।

তিনি আরও যোগ করেন, আমাদের কর্মকান্ডে সাংবাদিকরা অনেক সহায়তা করে। সাংবাদিকরা সহযোগিতা করেছে বলেই সবাই এখন হেলমেট পরে ও উল্টোপথে গাড়ি চলে না।

সান লাইফ ইনসিওরেন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহাদত হোসেন সোহাগ বলেন, আজ থেকে ২৭২ জন সদস্যকে নিয়ে এই গ্রুপ বীমা কার্যকর হলো। এই চুক্তির মাধ্যমে ২৬টি রোগের চিকিৎসার জন্য এই তহবিল হতে সাহায্য করা হবে। যদি কেউ দুর্ঘটনায় মারা যায় সেক্ষেত্রে তার পরিবারকে ৪ লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে। এছাড়াও যদি স্বাভাবিকভাবে কেউ মারা যায় সেক্ষেত্রে তার পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে।

সমাপনী বক্তব্যে ক্র্যাবের সভাপতি আবুল খায়ের বলেন, পুলিশ আর সাংবাদিকের মাঝে কোন পার্থক্য নাই। আমরা যখন সাংবাদিকতায় আসি তখনি জানি যে কি কি করা যায় আর কি কি করা যায় না। আজকের এই গ্রুপ বীমা চুক্তি স্বাক্ষরিত হলো ক্র্যাবের সদস্যদের কল্যাণের জন্য।

ক্র্যাব সভাপতি আবুল খায়েরের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন ও সানলাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানির কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন সোহাগ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্র্যাবের সাবেক সভাপতি মধুসূদন মন্ডল, ক্র্যাব সহ-সভাপতি মিজান মালিক, ক্র্যাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান খান, সিনিয়র সাংবাদিক খায়রুজ্জামান কামাল, গাফফার মাহমুদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ক্র্যাব সাধারণ সম্পাদক দীপু সারোয়ার।