ফেরার ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

7
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
অবশেষে অপেক্ষার প্রহর শেষ হলো। নভেল করোনাভাইরাসজনিত মহামারির কারণে লম্বা বিরতি কাটিয়ে আজ বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছে বাংলাদেশ। ফেরার ম্যাচে টসে জিতেছেন বাংলাদেশ দলের নতুন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এই সিরিজ দিয়েই অধিনায়ক হিসেবে তামিমের পথচলা শুরু। 

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয়েছে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১১টায়। সরাসরি সম্প্রচার করছে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি), টি স্পোর্টস ও নাগরিক টিভি।

দীর্ঘ ১০ মাসেরও বেশি সময় পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছে বাংলাদেশ। গত বছর ১১ মার্চের পর আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা হয়নি লাল-সবুজদের। মাঝের এই সময়টা ক্রিকেটারদের মাঠের বাইরে রেখেছে করোনাভাইরাস। গত বছরের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফেরার কথা থাকলেও সেটিতেও বাদ সাধে করোনা। অবশেষে শেষ হলো বাংলাদেশের অপেক্ষা। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ঘরের মাঠে স্বাগত জানিয়ে অপেক্ষার ইতি টেনেছে স্বাগতিকরা।

অবশ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না খেললেও করোনার মধ্যে সফলভাবে দুটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলে প্রথমে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ আয়োজন করে বিসিবি। এরপর মাঠে গড়ায় টি-টোয়েন্টি কাপ।

বাংলাদেশের ক্রিকেটে ফেরা ছাড়াও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজটি বিশেষভাবে স্মরণীয়। কারণ এই সিরিজ দিয়েই নিষেদ্ধাজ্ঞার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন হচ্ছে দেশ সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের। এ ছাড়া নতুন ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে শুরু হচ্ছে তামিম ইকবালের নতুন অধ্যায়। সবমিলিয়ে সিরিজটি স্মরণীয় করে রাখতে চাইবে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপ সুপার লিগ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে একদিনের ম্যাচের সিরিজ দিয়ে বিশ্বকাপ সুপার লিগ শুরু করছে বাংলাদেশ। এই লিগকে ২০২৩ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব ধরা হচ্ছে। আয়োজক হওয়ায় ভারত সরাসরি ওই প্রতিযোগিতায় খেলবে। তাদের সঙ্গে যোগ দেবে সুপার লিগের প্রথম সাতটি দল। বাকি দুটি দল নির্ধারিত হবে আরেকটি বাছাইপর্বের মাধ্যমে।

বিশ্বকাপ সুপার লিগে খেলবে ১৩টি দল। ১২টি টেস্ট খেলুড়ে দেশ ছাড়া থাকছে ওয়ানডে মর্যাদা পাওয়া নেদারল্যান্ডস।

প্রত্যেক দেশকে মোট আটটি সিরিজ খেলতে হবে। এর মধ্যে চারটি হোম, চারটি অ্যাওয়ে। প্রত্যেক সিরিজে কমপক্ষে তিনটি ওয়ানডে থাকতে হবে।

একটি ওয়ানডে জয়ের জন্য দলগুলো ১০ পয়েন্ট পাবে। হারলে শূন্য। টাই হলে বা ম্যাচ পণ্ড হলে দুদলের মধ্যে ১০ পয়েন্ট সমান ভাগে ভাগ করে দেয়া হবে।

বাংলাদেশ দল : তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মাহমুদউল্লাহ, মোহাম্মদ মিঠুন, সৌম্য সরকার, আফিফ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেন, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, হাসান মাহমুদ, শরিফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে দল : জেসন মোহাম্মেদ (অধিনায়ক), সুনিল আমব্রিস, এনক্রুমা বোনের, জশুয়া ডি সিলভা, জামার হ্যামিল্টন, শেমার হোল্ডার, আকিল হোসেইন, আলজারি জোসেফ, কাইল মায়ার্স, আন্দ্রে ম্যাকার্থি, কেজর্ন ওটলি, রভম্যান পাওয়েল, রেমন রিফার, রোমারিও শেফার্ড, হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র।