ফুটেজ দেখে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে সতর্ক বাংলাদেশ

2
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
ওয়ানডে অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড দলে নেই। আসেননি টেস্ট অধিনায়ক জেসন হোল্ডারও। দুই অধিনায়ক ছাড়াও জাতীয় দলের নিয়মিত বেশ কয়েকজনকে ছাড়া বাংলাদেশ সফরে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। এক ঝাঁক নতুন ক্রিকেটার নিয়ে সফরে এসেছে অতিথিরা।

এদের মধ্য অনেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের অপেক্ষায়। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলে নিজেদের পোক্ত করে নিয়েছেন তাঁরা। এই জন্য নতুনদেরও বিপদজনক বলে মনে করেন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। ঘরোয়া ক্রিকেটের পরিসংখ্যান আর কিছু ফুটেজ দেখে তেমনটাই মনে হয়েছে তাঁর। তাই তরুণদের নিয়ে গড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল নিয়েও বাড়তি সতর্কতা বাংলাদেশ শিবিরে।

গতকাল সোমবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ডমিঙ্গো বলেন, ‘শ্রী (বাংলাদেশ দলের কম্পিউটার অ্যানালিস্ট শ্রীনিবাসন চন্দ্রশেখর) বেশ ভালো কাজ করেছে আমাদের জন্য। সিপিএল ও ঘরোয়া আসর থেকে সে ওদের খেলোয়াড়দের ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। আমরা দেখছি তাঁরা কেমন। হয়ত তাঁরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনভিজ্ঞ। কিন্তু অনেকেই সিপিএল ও ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেছে। তাদের পরিসংখ্যান ভাল।  তাদেরকে সহজে নেওয়ার সুযোগ নেই।’

বাংলাদেশ কোচ আরো বলেন, ‘এটা খুব কঠিন চ্যালেঞ্জ হতে যাচ্ছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ গর্বিত এক ক্রিকেট জাতি। এই তরুণরা নিজেদের প্রমাণ করতে চাইবে। তাঁরা চাইবে স্কোয়াডে জায়গা পাকা করতে। তাঁরা খুব অনুপ্রাণিত থাকবে। প্রথম বল থেকেই খেলা আমাদের হাতে রাখতে হবে। কঠিন হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে।’

আগামীকাল বুধবার থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ। ২০ ও ২২ জানুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে হবে সিরিজের প্রথম দুটি ওয়ানডে। ২৫ জানুয়ারি চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে হবে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে।

এরপর ২৮ থেকে ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে চার দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে সফরকারী দল। ৩ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট হবে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে, ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে।