স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর জার্সি নিয়ে তোলপাড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

7
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর জার্সি নিয়ে তোলপাড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম।
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
আবারও বিতর্ক বাংলাদেশ দলের জার্সি নিয়ে। শুরুতে দেশের নাম না থাকায় তোলপাড় হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এরপর বাংলাদেশ যুক্ত হলেও স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের নামের বিপরীতে অবস্থান ও আকার নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক।

এদিকে, শুরুতে জার্সিতে বাংলাদেশের নাম না থাকার ঘটনায় ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। পরবর্তীতে আইসিসির নিয়ম মেনে স্পন্সরের নাম বড় করে লেখা হয়েছে, দাবি তার।

বাংলাদেশের জার্সি বিভ্রাট নতুন নয়। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের সময় সবুজ জার্সিতে লালের ছোঁয়া না থাকায় আলোড়িত হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। টিম ফটোসশেনের পরও জার্সি বদলাতে বাধ্য হয় ক্রিকেট বোর্ড।

এবার স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর জার্সি নিয়েও সমালোচনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি প্রকাশ পেতেই ছড়াতে শুরু করে বিতর্কের স্ফুলিঙ্গ। সে জার্সিতে ছিল না বাংলাদেশের নাম।

তবে কয়েক ঘন্টার মধ্যেই সংশোধিত জার্সিতে স্পন্সরের সাথে দেশের নামও হাজির। ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন বিসিবি পরিচালক। তবে কতটা ক্ষমা করতে পারছেন দর্শকরা? এবার তাদের অভিযোগের তীর স্পন্সর এবং দেশের নামের অবস্থান ও আকার নিয়ে।

যদিও অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডসহ অনেক দেশই স্পন্সরকে প্রাধান্য দিয়ে জার্সির সামনে দেশের নাম লেখে না। ঠিক তেমনি দেশের নামের উপস্থিতি থাকলেও স্পন্সরের নাম প্রাধান্য পায় অনেক দেশেই। ব্যতিক্রমও আছে। আর আইসিসি ইভেন্টে শুধু থাকে দেশের নাম।

জার্সি সমালোচনা পাশে রেখে এবার প্রযুক্তিগত সমস্যায় বিসিবি। প্রথম ওয়ানডেতে ডিআরএস ব্যবহার নিয়ে রয়ে গেছে শঙ্কা। টেস্ট সিরিজের ব্রিটিশ আম্পায়ারের কোয়ারেন্টিন জটিলতাও এখনো কাটেনি।