বছরে ১০ এর বেশি হিন্দি সিনেমা চান হল মালিকরা

9
Print Friendly, PDF & Email

কালচারাল ডেস্কঃ
আগেও বেশ কয়েকবার এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পুরনো হিন্দি সিনেমা মুক্তিও পেয়েছে। তবে চলচ্চিত্রের নানা সংগঠনের নেতাকর্মীদের আন্দোলনের মুখে সেটি খুব একটা সফল হতে পারেনি। আবারও শোনা যাচ্ছে বলিউডের সিনেমা মুক্তি পাবে বাংলাদেশের সিনেমা হলগুলোতে।

ভারতে মুক্তির দিনেই বাংলাদেশে মুক্তি দেয়া হবে বলিউডের সিনেমা। সাফটা চুক্তিকে কিছুটা ‘আপগ্রেড’ করে এমন সিদ্ধান্তের দিকেই হাঁটছেন বাংলাদেশের সিনেমা প্রদর্শক সমিতির নেতারা। এ ব্যাপারে ঐক্যমতে পৌঁছেছেন চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালক সমিতির নেতারাও।

এই তথ্য কমবেশি সবারই জানা গেল কয়েকদিনের আলোচনার সূত্রে। তবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি মিয়া আলাউদ্দিন নতুন করে জানালেন আরও এক তথ্য। দেশের সিনেমা হলগুলো সচল রাখতে ১২ মাসে ১০টিরও বেশি বলিউডের হিন্দি সিনেমা প্রদর্শনের প্রস্তাব উঠেছে।

সম্প্রতি তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে করে হল মালিকরা বছরে দশটি ভারতীয় হিন্দি ছবি আমদানি করে প্রদর্শনের প্রস্তাব দেন। সেই প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে মন্ত্রীর কাছ থেকে তা বাস্তবায়নের আশ্বাসও পেয়েছেন সংগঠনের নেতারা।

হল মালিক ও প্রদর্শক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি মিয়া আলাউদ্দিন বলেন, ‘সরকারের কাছে আমরা বছরে ১০টার বেশি হিন্দি সিনেমা আমদানির প্রস্তাব দিয়েছি। প্রস্তাবে কিছুটা সায় মিলেছে। আশা করছি আমাদের দাবি মানা হবে। এটি পূরণ হলে হল ব্যবসায় যে ক্রান্তিকাল চলছে তার কিছুটা উন্নতি হবে বলেও প্রত্যাশা।’

এর আগে প্রযোজক, পরিচালক এবং প্রদর্শক সমিতির নেতারা নিজেরা বৈঠক করেন। সেখানে বৈঠক শেষে বলিউডের হিন্দি সিনেমা আনার ব্যাপারে একমত হন তারা।

হিন্দি সিনেমা আমদানির অনুমতির পাশাপাশি সিনেমা শিল্পকে বাঁচাতে তিন সংগঠনের পক্ষ থেকে সরকারকে খুব দ্রুত চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিকে শিল্পের সকল সুবিধার আওতায় আনারও দাবি জানানো হয়েছে।