যুক্তরাজ্যে লকডাউনের ভিতরেও করোনায় মৃত্যুর নতুন রেকর্ড

৯ই জানুয়ারী, ২০২১ || ০১:৫৬:০৮
9
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে চরম সংকটে ব্রিটেন। গত ৪ জানুয়ারি থেকে দেশটিতে শুরু হয়েছে তৃতীয় দফা লকডাউন। এর মাঝেই সংক্রমণ ও প্রাণহানিতে অতীতের সব রেকর্ড ছাড়াল বরিস জনসনের দেশ। এতে করে মৃতের সংখ্যা ৮০ হাজার ছুঁতে চলেছে। জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে লন্ডনে।  

ব্রিটেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্যমতে, গত একদিনে ৬৮ হাজার ৫৩ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা ২৯ লাখ ৫৭ হাজার ৪৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে প্রাণহানি ঘটেছে ১ হাজার ৩২৫ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৯ হাজার ৮৩৩ জনে ঠেকেছে। 

সুস্থতা বাড়লেও আগের তুলনায় তা কমেছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনামুক্ত হয়েছেন ১৩ লাখ ৬৪ হাজার ৮২১ জন রোগী। তবে গত একদিনে কেউ সুস্থতা লাভ করেনি। 

এদিকে,  আশঙ্কাজনকহারে ছড়িয়ে পড়ায় ভাইরাসটি ক্রমেই নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যাচ্ছে। এতে করে হাসপাতালগুলোতে রোগীদের উপচে পড়া ভিড় লেগেই আছে। এমতাবস্থায় লন্ডনে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন মেয়র। 

স্থানীয় সময় শুক্রবার লন্ডনের মেয়র সাদিক খান এ ঘোষণা দেন। এ সময়ে জনসাধারণকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানান। 

সাদিক খান বলেন, ‘যেভাবে করোনা বিস্তার লাভ করেছে, তা দিনদিন নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যাচ্ছে। এতে করে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে হাসপাতালগুলোর শয্যা শেষ হয়ে যাবে। আমরা জরুরি অবস্থা ঘোষণা করছি। কারণ, আমাদের শহরে হুমকি হয়ে ওঠা ভাইরাসটির প্রকোপ সংকটময় মুহূর্তে পৌঁছে গেছে।’

তিনি বলেন, ‘লন্ডনের কিছু কিছু জায়গায় প্রতি ২০ জনে একজনের শরীরে করোনা সংক্রমিত হচ্ছে। যা খুবই উদ্বেগের। অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসেও বেড়ে গেছে চাপ। দিনের আসছে ৯ হাজারের বেশি কল।’

এদিকে দেশটিতে ক্রমাগত ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে করোনার নতুন স্ট্রেইন। টিকা প্রয়োগ শুরু হলেও এখন পর্যন্ত তার সুফল তেমনটা মিলেনি বলেই জানাচ্ছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো। ফলে পরিস্থিতি আরও নাজুক অবস্থায় পৌঁছাচ্ছে, হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে।