অন্য দেশকে সবক দিলেও বিশ্বজুড়ে সমালোচনার মুখে যুক্তরাষ্ট্র

5
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
কেবল নিজ দেশে নয়, এমন নজিরবিহীন হামলার পর বিশ্বজুড়েও সমালোচনার মুখে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবারের (০৬ জানুয়ারি) সহিংসতায় গণতন্ত্র নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিমুখী আচরণ স্পষ্ট হয়েছে বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, তথাকথিত গণতান্ত্রিক দেশটি অন্য দেশকে সবক দিলেও নিজেদের বেলায় চুপ থাকে।

২০১৯ সালে হংকংয়ের পার্লামেন্টে হামলাকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার বলে বাহবা দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া আরব বসন্ত কিংবা যে কোনো দেশে অস্থিতিশীল রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে উদ্বেগ জানানোর পাশাপাশি গণতন্ত্রের বুলি আওড়ানো নতুন নয় দেশটির জন্য। বুধবার ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের সহিংসতার পর কঠোর সমালোনার মুখে মার্কিন গণতন্ত্র।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) বিশ্বের প্রতিটি গণমাধ্যমেই শিরোনাম মার্কিন পার্লামেন্ট ভবনে হামলা। বিশ্লেষকরাও এক হাত নিয়েছেন মার্কিন রাজনীতিবিদদের। তারা বলছেন, বুধবারের সহিংসতায় স্পষ্ট হয়েছে কতটা দ্বিমুখী যুক্তরাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক নীতি।

চীনা গণমাধ্যম চায়না মিডিয়া গ্রুপের অনুষ্ঠানে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র অন্যান্য দেশে পুলিশি প্রতি্রোধকে গণতন্ত্রের জন্য হুমকি আখ্যা দিলেও নিজ দেশের ক্ষেত্রে নিশ্চুপ থাকে। মার্কিন রাজনীতিবিদরা উদ্ধারের নামে গণতন্ত্রকে ব্যবহার করছে বলেও মত দেন বিশ্লেষকরা।

গণতন্ত্র নিয়ে অন্য দেশকে সবক দেয়ার আগে নিজ দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করারও পরামর্শ বিশ্লেষকদের।