আইন মেনে চলুন, শান্ত থাকুন: ট্রাম্প

6
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের কারণে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন। ভবনে ঢুকে পড়েছে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশের অবরোধকে পাত্তা না দিয়ে বুধবার (৬ জানুয়ারি) বিকেল ৪টার ঠিক আগে একদল উগ্র ট্রাম্প সমর্থক ঢুকে পড়ে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবনে। মুহূর্তে সেখানে এক অরাজক পরিস্থিতির উদ্ভব হয় যা ইতিহাসে বিরল। দীর্ঘক্ষণ তাণ্ডব চলার পর অবশেষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে স্থগিত যৌথ অধিবেশন পুনরায় চালু হয়। কারফিউ জারি করা হয়েছে ওয়াশিংটন ও ভার্জিনিয়ায়।

এমন পরিস্থিতিতে সমর্থকদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন ট্রাম্প। টুইটারে তিনি সবাইকে আইন মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন।

টুইটে ট্রাম্প বলেন, আমি ক্যাপিটল ভবনের সবাইকে শান্ত থাকতে বলছি। কোনো সহিংসতা চলবে না। আমরা আইনকানুন মেনে চলা দল, আইন মেনে চলুন। শান্ত থাকুন, ধন্যবাদ।

গত নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের বিজয় অনুমোদনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আইন প্রণেতারা বুধবার কংগ্রেসের এক যৌথ অধিবেশনে বসেন। উভয়কক্ষের এ অধিবেশনে পপুলার ভোটের ভিত্তিতে ইলেকটোরাল কলেজের দেওয়া ভোটগুলো গোনা হয় এবং তা চূড়ান্তভাবে প্রত্যয়ন করা হয়।

অধিবেশনের বিরোধিতা করে ওয়াশিংটনে জড়ো হন কয়েক হাজার ট্রাম্প সমর্থক, যাদের মধ্যে উগ্রপন্থি বিভিন্ন গ্রুপের সদস্যরাও রয়েছেন। সেই সমাবেশে বক্তব্যে নভেম্বরের নির্বাচনে পরাজয় মেনে না নেওয়ার ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

বিবিসি জানিয়েছে, এ সমাবেশের অল্প একটু দূরে গিয়ে কয়েকশ’ ট্রাম্প সমর্থক ক্যাপিটল ভবনে নিরাপত্তা ব্যারিকেড ভেঙে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান। একপর্যায়ে কংগ্রেসের অধিবেশন চলার মধ্যেই পুলিশের বাধা ভেঙে ক্যাপিটল ভবনে ঢুকে পড়েন তারা। ভবনে ধ্বংসযজ্ঞও চালানো হয়। পরে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ও পেপার স্প্রে ব্যবহার করে পুলিশ।

ট্রাম্প সমর্থকরা পার্লামেন্ট ভবনের সামনে দাঁড়িয়ে ‘ভোট চুরি বন্ধ করো’ স্লোগান দেওয়ার পাশাপাশি ভবনের বিভিন্ন অংশ গুঁড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। সেখানে তাদের তাণ্ডব অব্যাহত রয়েছে।