ছয় মাসে জনপ্রিয়তা বেড়েছে প্রধানমন্ত্রীর

23
Print Friendly, PDF & Email

ঋত্বিক তারিক, ঢাকাঃ
বর্তমান সরকারের প্রথম ছয় মাসে জনপ্রিয়তা বেড়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। দেশের ৮০ শতাংশ মানুষ প্রধানমন্ত্রীর কর্মকান্ডে সন্তোষ জানিয়েছেন। দেশের ৭৩ শতাংশ মানুষ সরকারের সার্বিক কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে সবচেয়ে সফল মন্ত্রী বলেও মতামত দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের করা জরিপে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে বলে দাবি করেছে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা কলরেডি। সংস্থাটির মূখ্য গবেষক অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী অধ্যাপক ড. আবুল হাসনাৎ মিল্টন এ তথ্য জানান।

তিনি জরিপের ফলাফল তুলে ধরে বলেন, সরকারের ছয় মাস পূর্তি উপলক্ষে গত ৮ থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত টেলিফোনের মাধ্যমে এক হাজার ২৫৫ জনের কাছ থেকে মতামত নিয়ে এ জরিপ পরিচালনা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭৬ শতাংশ পুরুষ এবং ২৪ শতাংশ নারী। এছাড়া, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ও পরে দুইটি জরিপ পরিচালনা করে সংস্থাটি।

এ জরিপের ফলাফল গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে জনগণের উদ্বেগের বিষয়গুলো সরকার নিরসনের চেষ্টা করবেন বলে আশা করে কলরেডি।

জরিপের ফলাফল অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গত ছয় মাসের কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেছে ৭৯.৭৫ শতাংশ। এর আগের জরিপে এ হার ছিল ৭০ শতাংশ। সরকারের কর্মকান্ডে গড়ে সন্তোষ জানিয়েছেন ৭৩.০৫ শতাংশ মানুষ। ২৫.৮২ শতাংশ মানুষ মনে করছেন বিগত দুই মেয়াদের তুলনায় এ ছয় মাসে সরকার অনেক ভালো কাজ করেছে। ২৯.১৬ শতাংশ মানুষ করছেন ভালো করছে এ সরকার। এর বিপরীতে সরকারের কর্মকান্ডে অসন্তোষ জানিয়েছেন ৫.৮২ শতাংশ এবং অধিকমাত্রায় অসন্তোষ জানিয়েছেন ৪.৮৬ শতাংশ মানুষ। বিগত দুই মেয়াদের মতোই গত মাসে সরকারের কর্মকান্ড একই রকম রয়েছে বলে মনে করেন ৩৪.৩৪ শতাংশ মানুষ।

জরিপের ফলাফল অনুযায়ী, বিগত ছয় মাসে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন মেগা প্রকল্প, রাস্তাঘাট উন্নয়ন ও শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নের বিষয়ে জরিপে অংশগ্রহণকারীরা প্রশংসা করেছেন। মেগা প্রকল্পের বিষয়ে সন্তোষ জানিয়েছেন ২২.২৩ শতাংশ, রাস্তা ও যোগাযোগ খাতের উন্নয়নে ২০.৪৯ শতাংশ এবং শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নে ৯.৭১ শতাংশ মানুষ।
অন্যদিকে, ধর্ষণসহ বিভিন্ন অপরাধ বৃদ্ধি, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও বিচারিক প্রক্রিয়ার সীমাবদ্ধতা নিয়েও উদ্বেগ জানিয়েছেন তারা। ধর্ষণ ও আইন-শৃঙ্খলার বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন ১৫.৭৬ শতাংশ, বিচারিক প্রক্রিয়ার সীমাবদ্ধতা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন ১১.৫০ শতাংশ অংশগ্রহণকারী। জরিপে অংশগ্রহণকারীরা অবকাঠামোগত উন্নয়ন, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, দুর্নীতি প্রতিরোধ, বেকারত্ব, বিদ্যুৎ, গণতন্ত্র, রোহিঙ্গার বিষয়েও উদ্বেগ জানান।

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ২১.৬৮ শতাংশ মানুষ সরকারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মনে করছেন নির্ধারিত সময়ে মেগা প্রকল্পের বাস্তবায়ন। এর বাইরে ১৫.২৫ শতাংশ অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, ৭.১৯ শতাংশ অবকাঠামোগত উন্নয়ন, ৫.০১ শতাংশ দুর্নীতি প্রতিরোধকে সরকারের চ্যালেঞ্জ মনে করছেন। এর বাইরে সরকারের চ্যালেঞ্জগুলোর মধ্যে রয়েছে বেকারত্ব দূরীকরণ, ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ, রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধান ও দারিদ্র্য বিমোচন।

জরিপের অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৪১ শতাংশ বিগত ছয় মাসের কর্মকান্ডের ভিত্তিতে সবচেয়ে সফল মন্ত্রী হিসেবে মনে করছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে। আর ২৯ শতাংশ সফল মন্ত্রী মনে করছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনিকে। এর বাইরে আরও প্রায় বিশ জন মন্ত্রীর নাম জরিপে উঠে এসেছে।

কলরেডি’র এই সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালসের ফ্যাকাল্টি কাজী আহমেদ পারভেজ ও কলরেডির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আজাদ আবুল কালাম।