৩ কারনে বাংলাদেশ এগিয়েঃ যা ভাবছেন পাকিস্তানের শিক্ষিত জনগোষ্ঠী (ভিডিও সহ)

8
Print Friendly, PDF & Email

কাজী মেহেদী হাসান, ঢাকাঃ
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতেই একটা রিপোর্ট এসেছিল, সর্বদিক থেকেই পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ। খুব প্রশান্তির এক খবর। কিন্তু পাকিস্তানের জনগনের জন্য লজ্জার। সম্প্রতি এই লজ্জার ব্যবচ্ছেদ করেছেন তারা এক লাইভ অনুষ্ঠানে। যেখানে, পাকিস্তানের শিক্ষিত জনগোষ্ঠী তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন ঠিক কী কী কারনে বাংলাদেশ পাকিস্তানকে এভাবে পেছনে ফেললো।

জনাপঞ্চাশেক লোকসমাগমের একটা লাইভ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কিভাবে পাকিস্তান থেকে এগিয়ে গেল এ নিয়ে উত্থাপিত প্রশ্নে বিস্তর আলোচনায় বাংলাদেশের উন্নয়নের মূল তিনটি পয়েন্ট আলোচক সামনে এনেছেন। পয়েন্ট তিনটা নিম্নরূপঃ

  • বাংলাদেশ সেনা শাসন ও সেনাবাহিনী থেকে রাষ্ট্রব্যবস্থাকে আলাদা করে রাখতে সচেষ্ট আছে, যা পাকিস্তান পারেনি। পাকিস্তান বার বার প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে সেনা শাসনের কবলে পড়েছে।
  • বাংলাদেশ রাষ্ট্রের সংবিধানে ‘ধর্ম নিরপেক্ষতা’ যুক্ত করেছে এবং তা চর্চার জন্য অন্তত চেষ্টা করে। পাকিস্তানে ধর্মনিরপেক্ষতা শব্দটাই নিষিদ্ধ, শব্দটা উচ্চারণেই হৈচৈ শুরু হয়ে যায়।
  • বাংলাদেশ নারী শিক্ষার উপর জোর দিয়েছে। বিরাট সংখ্যক নারী শিক্ষিত হয়েছে এবং হচ্ছে যা জাতীয় অর্থনীতি এবং সমাজব্যবস্থায় প্রভাব ফেলছে। পাকিস্তান নারী শিক্ষায় যোজন যোজন পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ থেকে, যা পুরো পাকিস্তানকে প্রতিযোগিতার মূল সড়ক থেকেই ছিটকে ফেলেছে।

এখনো পাকিস্তানকে আদর্শ মনে করেন এমন অনেকেই এখনো এদেশে আছেন। পাকিস্তানের শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর এই বক্তব্য তাদের আরেকবার চিন্তার খোরাক দেবে নিশ্চয়ই। দোয়া করি, এই বাংলার আলো, হাওয়া আর জলে যাদের জন্ম-বেড়ে ওঠা সেইসব সুচিন্তিত মাথাগুলো আলো হাতে দাঁড়িয়ে যাক আরও অনন্তকাল…