রাজধানীতে বাস ডাকাতির ঘটনায় ৭ সদস্য গ্রেফতার

12
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
রাজধানীর আদাবর থানার শ্যামলী এলাকা হতে যাত্রী বেশে এ কে ট্রাভেলসের একটি বাসে ডাকাতির ঘটনায় ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা তেজগাঁও বিভাগ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- ফকরুল কবির শান্ত (২৩), রফিক (২৬), রিয়াজ (২৪), রাসেল (২৭), শাহজামাল (৩০), হারুন অর রশীদ (২৩) ও হুমায়ন কবির (২৫)। গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ৩টি ছুরি, ৩টি চাপাতি, ০১টি সুইচ গিয়ার, ২টি ওয়াকিটকি এবং লুন্ঠিত নগদ ৬০০০ টাকা ও ১০টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

গোয়েন্দা তেজগাঁও বিভাগের অতিরিক্ত-উপ পুলিশ কমিশনার মো: আনিচ উদ্দীন জানান, গত ১৯ ডিসেম্বর, ২০২০ রাতে শ্যামলী এলাকা হতে এ কে ট্রাভেলসের একটি বাসে যাত্রী বেশে উঠে একদল ডাকাত। বাসে উঠেই ডাকাত দল প্রথমে বাসের ড্রাইভার, সুপারভাইজার ও হেলপারের হাত, পা ও মুখ বেঁধে ফেলে। এরপর ডাকাতদের একজন গাড়িটি চালাতে থাকে। তারা বাড্ডা ও কুড়িলসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় বাস নিয়ে ঘুরে ঘুরে যাত্রী উঠায়। বাসে উঠার পর দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে যাত্রীদের কাছে থাকা টাকা, মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয়। সকাল হয়ে গেলে খিলক্ষেত এলাকায় রাস্তার পাশে বাসটি থামিয়ে ডাকাত দল পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ২০ ডিসেম্বর আদাবর থানায় একটি মামলা রুজু হয়।

অতিরিক্ত-উপ পুলিশ কমিশনার আনিচ উদ্দীন জানান, মামলাটি থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা-তেজগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর জোনাল টিম তদন্ত শুরু করে। গোয়েন্দা বিভাগের এই টিম মোহাম্মদপুর, মিরপুর, সাভার ও গাবতলীসহ ঢাকা শহরের বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত ডাকাত দলের উল্লেখিত সাত সদস্যকে গ্রেফতার করে।

এই গোয়েন্দা কর্মকর্তা আরো জানান, গ্রেফতারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ডাকাতির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের প্রত্যেকের নামে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এই চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত আছে।