প্রতারণা মামলায় জামিন পেলেন পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস

২৮ই অক্টোবর, ২০২০ || ০৪:০০:৩৮
9
Print Friendly, PDF & Email

কালচারাল ডেস্ক:
প্রতারণা অভিযোগে বুধবার (২৮ অক্টোবর) গ্রেপ্তার হন চলচ্চিত্র পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস। তবে এর কিছুক্ষণ পরে শর্ত সাপেক্ষে জামিন পেয়েছেন এই নির্মাতা।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই লিটন সরকার ইমন নামের এক ব্যক্তি দেবাশীষ বিশ্বাসের মা গায়েত্রী বিশ্বাস প্রযোজিত ‘মায়ের মর্যাদা’, ‘শুভ বিবাহ’, ‘অপেক্ষা’ এবং ‘অজান্তে’ সিনেমা পিএনটিভি ইউটিউব চ্যানেলে বাণিজ্যিকভাবে প্রচারের জন্য কিনেছিলেন। ১ লাখ ৪০ হাজার টাকায় ৬০ বছরের জন্য সিনেমা চারটি কেনার পর ওই ব্যক্তি তার চ্যানেলে আপলোড করলে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ কপিরাইট ইস্যুতে চ্যানেলটি বন্ধ করে দেয়। তখন তিনি জানতে পারেন, সিনেমাগুলো আসামিরা এর আগে ২০১৭ সালে অন্য ব্যক্তিদের কাছে বিক্রি করেছিলেন।

ওই ঘটনায় ২০১৯ সালের ৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে লিটন সরকার ইমন বাদী হয়ে দেবাশীষ বিশ্বাসের নামে প্রতারণার মামলা করেন। একই বছর ৫ ডিসেম্বর আসামিদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করা হলেও আসামিরা হাজির না হওয়ায় গত ২১ অক্টোবর তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ারানা জারি করেন আদালত।

এরই প্রেক্ষিতে বুধবার (২৮ অক্টোবর) দেবাশীষ বিশ্বাস আদালতে আত্মসমর্পণ করে তার বিরুদ্ধে হওয়া প্রতারণা মামলা থেকে জামিন আবেদন করেন। এ সময় ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান নূর তাকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। তবে অভিযোগে উল্লেখিত টাকা আগামী শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) ফেরত দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে তাকে জামিন দেন আদালত।

ফলে চুক্তি অনুযায়ী নেওয়া টাকা ফেরত দেয়ার প্রতিশ্রুতিতে আইনজীবী খন্দকার মুহিবুল হাসান আপেলের মাধ্যমে জামিন আবেদন করলে সেই শর্তে তার জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।