রিফাত হত্যার ঘাতক নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত

১ই জুলাই, ২০১৯ || ০৮:৩৮:১৯
101
Print Friendly, PDF & Email

নিউজবি২৪ অনলাইন রিপোর্টঃ
বরগুনায় প্রকাশ্যে স্ত্রীর চোখের সামনে স্বামী শাহ নেওয়াজ রিফাত শরীফকে (২৫) কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনার নায়ক-ঘাতক বহুলালোচিত নয়ন বন্ড (২৫) পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকালেই বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরগুনা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন।

বরগুনার বুড়ির চর ইউনিয়নে নয়নের সঙ্গে পুলিশের এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা হয়।

এসপি জানান, রিফাত হত্যাসহ ১১ মামলার আসামি নয়নকে গ্রেফতারে বুড়ির চরে অভিযানে গেলে পুলিশের ওপর গুলি চালান নয়ন বন্ড। এ সময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। গুলি বিনিময়ের একপর্যায়ে নয়ন বন্ডের গুলিবিদ্ধ মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি, শর্টগানের দু’টি গুলির খোসা এবং তিনটি দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ৩ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।


বাঁয়ে রিফাত, ডানে নয়ন বন্ড

রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়নের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্রসহ আরও ১০টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে বরগুনা সদর থানায় আটটি মামলার সবক’টিতে জামিনে ছিলেন তিনি। এসব মামলার মধ্যে দু’টি মাদক আইনে, একটি অস্ত্র মামলা ও বাকি পাঁচটি মামলা বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের।

এভাবেই স্ত্রীর চোখের সামনে রিফাতকে হত্যা করা হয়

দুই মাস আগে রিফাত শরীফের সঙ্গে মিন্নির বিয়ে হয়। পরে মিন্নিকে নিজের স্ত্রী বলে দাবি করেন বরগুনা পৌরসভার ধানসিঁড়ি এলাকার আবুবকর সিদ্দিকের ছেলে সাব্বির আহমেদ নয়ন ওরফে নয়ন বন্ড। এ নিয়ে রিফাত ও নয়নের মধ্যে একাধিকবার ঝগড়াও হয়। পরে মিন্নির ফেসবুক আইডি হ্যাক করে বেশ কিছু ছবি দিয়ে অপত্তিকর পোস্ট দেন নয়ন। এনিয়ে রিফাতের সঙ্গে তুমুল ঝগড়াও হয় নয়নের। বুধবার (২৬ জুন) দুপুরে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে মিন্নি ও রিফাতকে পেয়ে নয়ন ও তার সহযোগীরা প্রকাশ্যে নির্মমভাবে কুপিয়ে ফেলে রেখে চলে যায়। এরপর স্থানীয়রা রিফাতকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় রিফাত।