তরুণ নেতৃত্বের খোঁজে আওয়ামী লীগ

26
Print Friendly, PDF & Email

ঋত্বিক তারিক, ঢাকাঃ
বাংলাদেশের প্রাচীনতম ও ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। সম্প্রতি দলটি তাদের পথচলার ৭০ বছর পূরণ করেছে। দীর্ঘ এ পথ চলায়, নানা চড়াই উৎরাই পেরিয়ে জায়গা করে নিয়েছে গণমানুষের হৃদয়ে। দলটি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আছে টানা তিন মেয়াদে ১১ বছর।

আগামী অক্টোবরে দলটির ২১তম জাতীয় সম্মেলনের সম্ভবনা আছে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে প্রস্তুতি নিতে ইতোমধ্যেই শীর্ষ নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্মেলনের আগে মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের ইউনিটের কমিটি গঠন করে সম্মেলন করতে চায় আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড। আর এসব ইউনিট পর্যায়ের নেতৃত্বও তুলে দিতে অপেক্ষাকৃত তরুণদের খোঁজে রয়েছে তারা। সেই লক্ষ্য নিয়েই কাজ শুরু করেছে ক্ষমতাসীনরা।

আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে এমন আভাসই পাওয়া গেছে।

তারা বলেন, ২০তম জাতীয় সম্মেলনেও বেশ কয়েকজন তরুণকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে। তাদের অন্তর্ভুক্তি দলে গতিও সঞ্চার করেছে। তাদের সাংগঠনিক কাজের ‘পারফরমেন্সে’ সন্তুষ্ট দল। এ কারণেই ২১তম সম্মেলনে তৃণমূল আওয়ামী লীগেও তরুণদের স্থান দিতে চায় দলটি। আর তাই দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নির্দেশেই এবার জেলা-উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে কেন্দ্রীয় নেতারা সম্মেলনের মাধ্যমে তরুণদের হাতে সাংগঠনিক দায়িত্ব তুলে দিতে কাজ করছেন।

তৃণমূলের ইউনিটগুলোতে অপেক্ষাকৃত তরুণ নেতৃত্বের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান বলেন, ‘২১তম সম্মেলনে ইউনিয়ন, ওয়ার্ড ও থানা কমিটিতে কোনো চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, জমি দখলকারী, অনুপ্রবেশকারী ও সন্ত্রাসীরা যাতে আসতে না পারে, কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে সেটাই আমাদের দাবি।’

আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এবার জেলা পর্যায়ে সম্মেলনে অন্তত ২০ থেকে ৩০টি ইউনিটের বিভিন্ন পদে অপেক্ষাকৃত তরুণ নেতাদের জায়গা করে দেওয়া হতে পারে। তবে তাদের অবশ্যই রাজনৈতিক ত্যাগ যেমন থাকবে, তেমনি দক্ষতা-মেধাও থাকতে হবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগে সবসময়ই নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করা হয়। তরুণের মেধা-শ্রম আর প্রবীণের অভিজ্ঞতা এই দুই মিলেই আওয়ামী লীগ। তৃণমূলের বিভিন্ন ইউনিটের সম্মেলনে যোগ্য তরুণ নেতৃত্বই খুঁজে বের করার চেষ্টা করব।’

এদিকে, তরুণদের রাজনীতিমুখী করতে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত করতে নানামুখী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দল। আওয়ামী লীগের নির্বাচনি ইশতেহারে তরুণদের নিয়ে দলীয় চিন্তাভাবনা, বাজেটে তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখার মধ্যদিয়ে তরুণ সমাজকে নিয়ে আওয়ামী লীগের ইতিবাচক মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। আওয়ামী লীগের মিডিয়া সেল, প্রচার প্রকাশনা কমিটি, গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিআরআই নিয়মিত তরুণদের নিয়ে মতবিনিময় সভাসহ নানা কর্মসূচিও পালন করে আসছে।