করোনা: ঝুঁকিতে বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা!

12
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে বলে সতর্ক করেছে বিশেষজ্ঞরা। বিভিন্ন দেশে লকডাউন জারি করায় মানুষ বাড়তি খাদ্য-সামগ্রী মজুদ করেছে। এর ফলে স্বাভাবিক সরবরাহ বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে বলে জানান ন্যাশনাল অস্ট্রেলিয়ান ব্যাংকের অর্থনীতিবিদ ফিন জিয়াবেল।

মানুষের অদৃশ্য শত্র“ করোনা ভাইরাস মোকাবেলায যুদ্ধে বিশ্বের বহুদেশ নানাভাবে এখন লকডাউন। দীর্ঘ ঘরবন্দি থাকার আশঙ্কায় অতিরিক্ত খাদ্য মজুদ শুরু করে তারা। এতে টান পড়ে খাদ্যপণ্যেও মজুদে।

ন্যাশনাল অস্ট্রেলিয়ান ব্যাংকের অর্থনীতিবিদ ফিন জিয়াবেল বলেন, এই পরিস্থিতিতে রপ্তানীকারকরা সুযোগ নেয়ার চেষ্টা করে। এতে, ভোক্তাদের চিন্তিত হওয়ারই কথা। তিনি বলেন, প্রকৃতপক্ষে বিশ্বে খাদ্য স্বাভাবিক সরবরাহ রয়েছে রয়েছে।

বিশ্বের তৃতীয় চাল রপ্তানীকারক দেশ ভিয়েতনাম এবং গম রপ্তানীতে নবম কাজাখাস্তান স্থানীয় বাজারে খাদ্যের চাহিদা দেখা দেয়ায় রপ্তানিতে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। চাল রপ্তানীতে বিশ্বের প্রথম স্থান দখলকারী ভারতে তিন সপ্তাহের লকডাউন চলছে। তাদের রপ্তানী বন্ধ হওয়াটাই স্বাভাবিক।

এছাড়া, মালয়েশিয়া রাশিয়ায় ভোজ্য তেল উৎপাদনের কাঁচামাল সূর্যমূখী বীজ ও পাম রপ্তানী বন্ধ করে দেয়ায় সেখানেও উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে। সবকিছু মিলিয়ে, অপ্রয়োজনীয় খাদ্য মজুদের কারনে ব্যবসায়ীদের চিন্তায় ফেলে দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে উৎপাদিত শষ্য দিয়ে পুরো মানবজাতির খাদ্যের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব। তবে, রপ্তানী কমে যাওয়ায় বাজারে এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। স্থানীয় বাজারে বেড়ে গেছে পণ্যের দাম।