কান ধরে ওঠবসে সমালোচনার ঝড়ে নতুন দায়িত্ব পেলেন গোলদার

34
Print Friendly, PDF & Email

যশোর থেকে করসপন্ডেন্ট:

যশোরের মণিরামপুরের তিন বৃদ্ধকে কান ধরে উঠবস করানোর ঘটনায় সেই এসিল্যান্ড সাইয়েমা হাসানকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তার স্থলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে এসিল্যান্ডের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সুফল চন্দ্র গোলদারকে।

এর আগে এসিল্যান্ড সাইয়েমা হাসানের শাস্তির দাবিতে বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় উঠে।

যশোরের ডিসি মোহাম্মদ শফিউল আলম শনিবার (২৮ মার্চ) সকালে এ আদেশ দেন।

সুফল চন্দ্র এরইমধ্যে মণিরামপুরে দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন। তিনি ডিসি কার্যালয়ে সিনিয়র কমিশনার ও ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা (ভূমি ও হুকুম দখল শাখা) হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মণিরামপুরের ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আহসান উল্লাহ শরিফী বলেন, শুক্রবার বিকেলের অনাকাঙিক্ষত ঘটনায় ডিসি স্যার এসিল্যান্ড সাইয়েমা হাসানকে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দিয়েছেন। তার স্থলে শনিবার সকাল থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কাজ করছেন সুফল চন্দ্র গোলদার।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনগণের চলাচল নিয়ন্ত্রণ রাখতে শুক্রবার বিকেলে মণিরামপুরের চিনাটোলা ও কোনাকোলা বাজারে অভিযান পরিচালনার সময় তিন বৃদ্ধকে মাস্ক না পরার অপরাধে কানে ধরিয়ে শাস্তি দেন সাইয়েমা হাসান। তাদের মধ্যে কোনাকোলা বাজারে একজনকে তিনি উঠবস করান। আবার সেই ছবি নিজেই মোবাইলে ধারণ করেন।

শুক্রবার রাত থেকে বৃদ্ধদের কান ধরানো ছবিগুলো ফেসবুকে ভাইরাল হতে থাকে। সাইয়েমা হাসানের শাস্তির দাবিতে বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় উঠে।

এদিকে, কান ধরানো সেই বৃদ্ধদের খোঁজ-খবর নিতে শনিবার সকালে তাদের বাড়িতে খাদ্যদ্রব্য নিয়ে হাজির হয়েছেন ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী।