এবার কর্মীদের বাসা থেকেই কাজের নির্দেশ ব্র্যাকের

10
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
করোনা ভাইরাসের কারণে বাসায় বসেই কাজ করবেন মহাখালীতে অবস্থিত দেশের শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের প্রধান কার্যালয়ের কিছু সংখ্যক কর্মী। আগামী রোববার (২২ মার্চ) থেকে ওই কর্মীদের আর অফিসে এসে কাজ করতে হবে না।

বুধবার (১৮ মার্চ) প্রতিষ্ঠানটির হেড অব মিডিয়া অ্যান্ড এক্সটার্নাল রিলেশনস (ভারপ্রাপ্ত) রাফে সাদনান আদেল স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, মহাখালীতে অবস্থিত ব্র্যাকের প্রধান কার্যালয়ে দুই হাজার কর্মী কাজ করেন। এর মধ্যে যারা বর্তমান পরিস্থিতিতে জরুরি কাজে নিয়োজিত নয় (নন এসেনশিয়াল স্টাফ) তারা আগামী রোববার থেকে অফিসে আসবেন না। সামনের সপ্তাহের পুরোটাই এভাবে চলবে। পরবর্তী শনিবার (২৮ মার্চ) পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে কর্তৃপক্ষ নতুন সিদ্ধান্ত জানাবেন।

বুধবার (১৮ মার্চ) সকালে ব্র্যাকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের এক জরুরি সভার পর এ সিদ্ধান্তের ঘোষণা দেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ। পাশাপাশি প্রধান কার্যালয়ের বাইরে দেশব্যাপী ব্র্যাকের কর্মীদের সীমিত পরিসরে সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, সমাজের অন্যদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধিতেও কাজ করবে ব্র্যাক। দেশজুড়ে ব্র্যাকের কর্মী ও স্বাস্থ্যসেবী মিলিয়ে প্রায় এক লাখ লোক এই সচেতনতা বৃদ্ধির কাজ করবেন। ইতিমধ্যেই ব্র্যাকের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, ব্লগ ও ওয়েবসাইটে করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত সকল ধরনের তথ্য হালনাগাদ করা হচ্ছে। করোনা ভাইরাসের কার্যক্রম নিয়ে ব্র্যাকের ওয়েবসাইটে একটি আলাদা ক্যাটাগরি খোলা হয়েছে, যেখান থেকে সবাই নির্ভরযোগ্য ও হালনাগাদকৃত তথ্য পেতে পারে।

আসিফ সালেহ বলেন, ‘এ সঙ্কট মোকাবিলায় সরকারকে সহযোগিতা করতে ব্র্যাক সবসময়ই প্রস্তুত’। কোভিড-১৯ শনাক্তের জন্য সারা দেশে পর্যাপ্ত কিট সরবরাহের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

এদিকে, করোনা ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে দুদিন আগেই কর্মীদের বাসায় বসে কাজ করতে উৎসাহিত করছে দেশের শীর্ষ মুঠোফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক।