কোভিড-১৯: সচেতনতামূলক হ্যান্ডবিল সারাদেশে বিলি করবে আ.লীগ

13
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়া থেকে সতর্ক থাকার জন্য তৃণমূল পর্যায়ে হ্যান্ডবিল বিলি করছে আওয়ামী লীগ।

শুক্রবার (১৩ মার্চ) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের মহানগর ও সহযোগী সংগঠনগুলোর মধ্যে হ্যান্ডবিল বিলি করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ভাইরাস সংক্রমণ যাতে না হয় সেজন্য সর্তকতাস্বরূপ করণীয় উল্লেখ করে হ্যান্ডবিল বিতরণ করা হচ্ছে দলের পক্ষ থেকে। আজ আমরা ঢাকা মহানগর ও দলের সহযোগী সংগঠনগুলোকে ডেকেছি। তারা হ্যান্ডবিল এখান থেকে নিয়ে যাবেন। হ্যান্ডবিল বিভিন্ন জেলা পর্যায়েও পাঠানো হচ্ছে। তৃণমূল পর্যন্ত এই ক্যাম্পেইন চালিয়ে যেতে চাই। আমাদের পার্টি আমাদের সহযোগী সংগঠনগুলো, সতর্কতামূলক কর্মসূচি নিয়েছে। যেমন আমরা ডেঙ্গু প্রতিরোধে সতর্কতামূলক কর্মসূচি নিয়েছিলাম, তেমনি এ ভয়ঙ্কর করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে দেশের জনগণকে সতর্ক করার জন্য কর্মসূচি নিয়েছি।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, আফজাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবাহান গোলাপসহ দলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জনগণকে সতর্ক করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই একজন ক্যাম্পেইনার হয়ে তার প্রতিদিনের বক্তৃতায় বলে যাচ্ছেন। এতে সতর্কতামূলক একটা আবহ দেশে তৈরি হয়েছে।

সব ইস্যু হারিয়ে বিএনপি এখন কোভিড নিয়ে রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, কোভিড ঠেকাতে সরকারের নেয়া কার্যক্রমের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য হাস্যকর। বিএনপি যে কোনও মূল্যে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজছে।

তিনি আরও বলেন, কোভিডের কারণে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে। তারপরেও বিএনপির উদাসীনতার অভিযোগ হাস্যকর।

তিনি বলেন, বিএনপি রাজনৈতিকভাবে ব্যর্থ। তাদের রাজনীতিই হচ্ছে দোষারোপের রাজনীতি। তারা জনগণের জন্য কিছু করে না। লুটপাট করতে ক্ষমতায় আসতে চায়। তাই যে কোনও ইস্যু এলেই তা অবলম্বন করে তারা ক্ষমতায় যেতে চায়।

এ সময় কাদের বলেন সাংবাদিকদের উদ্দেশ করে বলেন, ‘‘করোনা প্রস্তুতি শুরু হওয়ার পর থেকে কোথায় কোথায় সরকারের প্রস্তুতির ঘাটতি আছে? আমাদের কিছু কিছু যন্ত্রপাতির সমস্যা থাকতে পারে কিন্তু সেটা এখন সমাধান হয়ে গেছে। এখন করোনা প্রস্তুতিতে কোনও কিছুরই ঘাটতি নেই।

সেতুমন্ত্রী বলেন, করোনা চীন থেকে শুরু হয় এখন একটা বৈশ্বিক সমস্যায় পরিণত হয়েছে। এ জন্য সারাবিশ্বে সতর্কতাবস্থায় রয়েছে। আমাদের দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুরু থেকেই, দেশবাসী ও জনগণকে সচেতন করছেন। করোনা ভাইরাস নিয়ে আমাদের ক্যাম্পেইন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শুরু করেছেন এবং সরকারের সম্পর্কিত যে মন্ত্রণালয় রয়েছে তার সংশ্লিষ্ট সবাইকেই বিভিন্ন পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকে আমরা সর্বাত্মক ব্যবস্থা নিয়েছি। আমাদের দেশে এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্ত তিন ইতালিফেরত প্রবাসী বাঙালি সুস্থ হয়ে গেছেন। আরেকজন সংক্রমিত হওয়ার শঙ্কা করা হয়েছিল কিন্তু তিনিও সুস্থ আছেন। কাজেই আমাদের দেশে এই সংখ্যাটি এখনও সেভাবে আসেনি। কিন্তু আমাদের সতর্কতা আছে, যাতে এই সঙ্কট আমাদের এখানে সেভাবে তৈরি না হয়। দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সব করণীয় ঠিক করা হয়েছে।