শিক্ষাসফরে গিয়ে শিক্ষিকার হাত বিচ্ছিন্ন, আহত ১৫ শিক্ষার্থী

19
হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া ওই শিক্ষিকাকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় পাঠানো হয়
Print Friendly, PDF & Email

গোপালগঞ্জ থেকে করসপন্ডেন্ট:
গোপালগঞ্জে শিক্ষা সফরে আসা বাস ও ট্রাকের মধ্যে সংঘর্ষে ফাহিমা বেগম (৫০) নামে এক শিক্ষিকার বাম হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে। এ সময় ওই বাসে থাকা অন্তত ১৫ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার পাথালিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতরা ঢাকার কাকরাইলের উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজের কলেজ শাখার শিক্ষক ও শিক্ষার্থী। আহতদের মধ্যে ১০ জনকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নুর মোহাম্মদ সিকদার জানিয়েছেন, ঢাকার কাকরাইলের উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজের কলেজ শাখার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে সমাধি সৌধে শিক্ষা সফরে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোনাপাড়া এলাকায় বাস চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকের পিছনে ধাক্কা লাগায়। এতে উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজের পৌরনীতি বিভাগের শিক্ষিকা ফাহিমা বেগমের বাম হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ও অন্তত ১৫ শিক্ষার্থী আহত হয়।

বেলা সাড়ে ৩ টায় হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া ওই শিক্ষিকাকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা ও পুলিশ সুপার মেহাম্মদ সাইদুর রহমান খানসহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগন ঘটনাস্থল ও হাসপাতালের রোগীদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।