‘করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে বাংলাদেশ’: এখনই পদক্ষেপ চান চীনা রাষ্ট্রদূত

20
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
এই মুহূর্তেই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মোকাবেলায় বাংলাদেশের সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেওয়া উচিত বলে জানিয়েছেন চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। রাষ্ট্রদূত এসময় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি এদেশে অবস্থানরত চীনা নাগরিকদের ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধির আহ্বানও জানান।

বিশ্বের নানা প্রান্তের প্রায় ৭০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)। এই অবস্থায় বাংলাদেশও ভাইরাসটি বিস্তারের শীর্ষ ঝুঁকিতে আছে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ইতোমধ্যেই এই ভাইরাস সংক্রমণ বাংলাদেশের প্রতিবেশী ভারত ও নেপালে ধরা পড়েছে। ছড়িয়ে পড়েছে মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কিছু দেশে। এসব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যাপক যোগাযোগ থাকায় এই মুহূর্তেই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিতে হবে।

বুধবার কেরাণীগঞ্জে চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেড (সিআরইসি) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে লি জিমিং এই সতর্কবার্তা দেন।

রাষ্ট্রদূত এসময় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি এদেশে অবস্থানরত চীনা নাগরিকদের ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধির আহ্বানও জানান। তিনি বলেন, চীন সরকারও একইভাবে সেদেশে অবস্থিত বাংলাদেশিদের ভিসার মেয়াদ বাড়িয়েছে।  

এসময় অনুষ্ঠানের আয়োজক সিআরইসি’র পক্ষ থেকেও বাংলাদেশে অবস্থিত তাদের চীনা কর্মীদের মাঝে ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সকল প্রকার সতর্ক পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানানো হয়।

কোম্পানিটি জানায়, সতর্কতামূলক পদক্ষেপের অংশ হিসেবে যেসব কর্মী সম্প্রতি ভাইরাসের উৎসস্থল হুবেই প্রদেশ সফর করেছেন তাদের অনির্দিষ্টকালের জন্য ছুটি দেওয়া হয়েছে। এদের মাঝে যারা ফেরার অনুমতি পেয়েছেন তাদের বাংলাদেশে প্রবেশের আগে কমপক্ষে একদিন ‘বিচ্ছিন্ন’ করে রেখে  সকল প্রকার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে।