চোখের মধ্যে ট্যাটু করাতে গিয়ে অন্ধই হয়ে গেলেন মডেল!

21
Print Friendly, PDF & Email

কালচারাল ডেস্ক রিপোর্ট:
ফ্যাশন দুরস্ত মহিলা-পুরুষের কাছে ট্যাটুর আকর্ষণ ভয়ানক। হাতে, গোড়ালিতে, পিঠে, ঘাড়ে- ট্যাটুর জন্য এক-একজন বেছে নেন নিজের শরীরের এক-একটা অংশ। সম্প্রতি জিভ এমনকি চোখেও ট্যাটু করাচ্ছেন অনেকেই। তেমনই চোখের সাদা অংশে ট্যাটু করাতে পার্লারে গিয়েছিলেন পোল্যান্ডের রোকলার বাসিন্দা আলেক্সান্দ্রা স্যাডোওস্কা।

তিনি পেশায় একজন ফ্যাশন মডেল। ঠিক যেভাবে বিখ্যাত র‌্যাপার পোপেক নিজের চোখের সাদা অংশে ট্যাটু করিয়ে কালো করিয়েছেন, সেভাবেই নিজের চোখ রাঙাতে চেয়েছিলেন আলেক্সান্দ্রা। এই আইবল ট্যাটুকে ‘স্ক্লেরাল ট্যাটু’ বলা হয়। কিন্তু এর ফলাফল যে এমন মারাত্মক হতে পারে তা কল্পনাও করেননি তিনি।

আইবল ট্যাটু করার জন্য আলেক্সান্দ্রা যোগাযোগ করেছিলেন পিয়োটার নামে স্থানীয় এক ট্যাটু শিল্পীর সঙ্গে।

আলেক্সান্দ্রার দাবি মেনে তার চোখের সাদা অংশে ট্যাটুও করে দেন পিয়োটার। কিন্তু তারপর থেকেই দু’চোখে মারাত্মক যন্ত্রণা শুরু হয় ২৫ বছরের মডেল আলেক্সান্দ্রার। পেইন কিলার খেয়েও যখন ব্যথা কমলো না, তখন ওই ট্যাটু শিল্পীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান আলেক্সান্দ্রা। চোখের ব্যথা সহ্যের মাত্রা ছাড়ালে শেষমেশ চিকিৎসকের দ্বারস্থ হন আলেক্সান্দ্রা।

চিকিৎসকরা জানান, ট্যাটুর জন্য ব্যবহৃত রঞ্জকটি আলেক্সান্দ্রার চোখের টিস্যুতে পৌঁছে গিয়েছে। এদিকে তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, ট্যাটুর জন্য ব্যবহৃত রঞ্জকটি চোখের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। ফলে তার দৃষ্টিশক্তি ফিরে পাওয়ার আশা আর নেই বললেই চলে।