হার্দিক পান্ডিয়ার ঝড়, ৩৭ বলে সেঞ্চুরি!

7
CARDIFF, WALES - JULY 06: India batsman Hardik Pandya hits out during the 2nd Vitality T20 International between England and India at Sophia Gardens on July 6, 2018 in Cardiff, Wales. (Photo by Stu Forster/Getty Images)
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক রিপোর্ট:
চোটের কারণে দীর্ঘদিন ক্রিকেটের বাইরে হার্দিক পান্ডিয়া। ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়েও খেলা হচ্ছে না তার। তবে ইনজুরি কাটিয়ে এবার মাঠে ফিরেছেন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরেই ঝড় তুলছেন ২২ গজে। মঙ্গলবার মুম্বাইর ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামে রীতিমতো টর্নেডো বইয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষের বোলারদের ওপর।

মাত্র ৩৭ বলেই করে ফেললেন সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ৩৯ বলে ১০৫ রানে।

ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার পান্ডিয়ার এটা ছিল দ্বিতীয় ম্যাচ। তাতেই দুরন্ত সেঞ্চুরি। এক ওভারে ২৬ রানও তোলেন হার্দিক পান্ডিয়া। ম্যাচটির পর ভারতীয় অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘আবার ক্রিকেটে ফিরে খুবই ভাল লাগছে। অনেক দিন কোনও প্রতিযোগিতায় খেলিনি আমি। তাই অনুভূতিটা একটু আলাদা।’

চোট থেকে ফিরে আসার পর টি-টোয়েন্টি কাপে রিলায়েন্স-১-এর হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলেছিলেন ব্যাংক অব বরোদার বিপক্ষে। ওই ম্যাচে চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ২৫ বলে ৩৮ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। ইনিংসে চারটি ছক্কাও হাঁকিয়েছিলেন। পরে বল হাতে প্রতিপক্ষের তিনটি উইকেট তুলে নিয়ে দলকে জিতিয়েছিলেন হার্দিক।

দ্বিতীয় ম্যাচে মঙ্গলবার সিএজি’র বিরুদ্ধে ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করে দুর্দান্ত কামব্যাক করেন এই অল-রাউন্ডার। মাত্র ৩৯ বলে ১০৫ রানের ইনিংস খেলেন হার্দিক। ইনিংসে ১০টি ছক্কা ও আটটি বাউন্ডারি মারেন চোটের জন্য ভারতীয় দলের বাইরে থাকা এই ক্রিকেটার। ইনিংসে মাত্র ৮ বল ডট খেলেন তিনি। হার্দিকের ব্যাটে ভর করে সিএজি ‘র বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেটে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২৫২ রান তোলে রিলায়েন্স-১।

পরে বল হাতে পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে প্রতিপক্ষকে ১৫১ রানে শেষ করে দেন হার্দিক। অস্ত্রোপচারের পর দীর্ঘদিন রি-হ্যাবে ছিলেন তিনি; কিন্ত মাঠে নামার মতো পরিস্থিতি হয়নি। তাই নিউজিল্যান্ড সফরে ভারতীয় দলে জায়গা হয়নি পান্ডিয়ার। অবশেষে বাইশ গজে ফিরে ব্যাট ও বলে দারুণ পারফর্ম করেন টিম ইন্ডিয়ার এই অল-রাউন্ডার।

শুধু ব্যাট হাতে ঝড় তোলাই নয়, জিমেও প্রচুর সময় কাটাচ্ছেন হার্দিক। এ দিন তিনি ইনস্টাগ্রামে নিজের দুটি ছবি পোস্ট করেছেন। আর লিখেছেন, ‘তিন মাসের মধ্যে ৮৬ কেজি থেকে ৭৫ কেজিতে। পরিশ্রম করেছি, কোনও সংক্ষিপ্ত রাস্তা নিইনি। লক্ষ্য, আরও শক্তিশালী, আরও ভাল হওয়া।’