দিল্লিতে পুড়েছে মুসলমানদের ১২২ বাড়ি ও ৩২২ দোকান

15
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
ভারতে পাস হওয়া বিতর্কিত নাগরিক আইন সংশোধনী ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনে দেশটির রাজধানী দিল্লিতে সহিংসতায় মারা গেছেন প্রায় অর্ধশত। তাদের অধিকাংশই মুসলমান। আহত হয়েছেন ৩৫০ জনের বেশি। মৃত্যুর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তবে সাম্প্রদায়িক এই হামলায় এরই মধ্যে ক্ষতির প্রাথমিক চিত্র প্রশাসনের তৈরি করা অন্তর্বর্তী রিপোর্টে উঠে এসেছে।

দিল্লির উত্তর-পূর্ব জেলার ওই রিপোর্টে বলা হয়, এখন পর্যন্ত সহিংসতার আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে ১২২টি বাড়ি, ৩২২টি দোকান এবং ৩০১টি গাড়ি।

সোমবার প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা জানান, চূড়ান্ত রিপোর্টে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

সাব ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেটদের অধীনে তৈরি ১৮টি দলের পেশ করা তথ্যের ভিত্তিতেই ওই অন্তর্বর্তী রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে।

দিল্লি ফায়ার সার্ভিসের ফাইল করা রিপোর্ট অনুযায়ী, গত সপ্তাহের সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল নাগাদ পুড়ে ছাই হয়ে যায় ৭৯টি বাড়ি, ৫২টি দোকান, পাঁচটি গোডাউন, চারটি মসজিদ, তিনটি কারখানা এবং দুটি স্কুল। পাঁচশর বেশি গাড়ি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

উল্লেখ্য, বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে বিক্ষোভ বন্ধে ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রর আলটিমেটামের কয়েক ঘণ্টা পর রাজধানী দিল্লিতে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। সিএএবিরোধী মুসলিমদের ওপর সশস্ত্র হামলা শুরু করে আইনটির সমর্থক উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএসের সশস্ত্র কর্মীরা। আরএসএস কর্মীদের হামলা ও তাণ্ডবলীলা চলে দীর্ঘ নয়দিন।