পিবিআইয়ের প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান সালমানের মামার

16
Print Friendly, PDF & Email

কালচারাল ডেস্ক:
চিত্রনায়ক সালমান শাহের মৃত্যু রহস্য নিয়ে পিবিআইয়ের তদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছেন সালমান শাহর পরিবার।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পিবিআই সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে সালমান শাহর মৃত্যুর ঘটনায় প্রতিবেদনটি তুলে ধরা হয়। এ প্রতিবেদন সালমান শাহর পরিবার প্রত্যাখ্যান করেছে বলে জানিয়েছেন তার মামা আলমগীর কুমকুম।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পিবিআইয়ের কাছে আমার প্রশ্ন, তারা কি সালমান শাহর স্ত্রী সামিরার আপন মামি রুবি সুলতানার বক্তব্য নিয়েছে? পিবিআই কি রুবি সুলতানা পর্যন্ত পৌঁছাতে পেরেছে? 

তিনি বলেন, এ মামলার যে রাজসাক্ষী রুবি সুলতানা, তিনি সামিরার মামী। তিনি তো বলেছেন সালমানকে হত্যা করা হয়েছে। তার ছেলেকে দিয়ে সামিরা পুটলি সরিয়েছে। ওই পুটলিতে কী ছিল? তাকে কেন জিজ্ঞাসাবাদ করা হলো না? তার পর্যন্ত কি পৌঁছানোর চেষ্টা করেছে পিবিআই? আমরা পুনঃতদন্ত চাইব।

আলমগীর কুমকুম আরও বলেন, ময়নাতদন্তের জায়গায় সামিরার বাবা কেন আমার সঙ্গে গেল? আমাকে ওখানে জিজ্ঞাসা করা প্রশ্নের উত্তর কেন উনি দিলেন? কেন সালমানের মরদেহ যেখানে পাওয়া গেল, সে ফ্যানের একটা ব্লেডও বাঁকা হয়নি? এমন অনেক প্রশ্নের উত্তর মেলেনি।

১৯৯৩ সালে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবি দিয়ে দেশীয় চলচ্চিত্র আগমন ঘটে সালমান শাহর। স্মার্টনেস, নিজস্বতার কারণে রাতারাতি তরুণ প্রজন্মের কাছে ভীষণ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন তিনি। মাত্র সাড়ে তিন বছরের ক্যারিয়ারে ২৭টি ছবি করেন, যার অধিকাংশই ছিল সুপারহিট।

খ্যাতির তুঙ্গে থাকাবস্থায় ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর মারা যান চিত্রনায়ক চৌধুরী মোহাম্মদ শাহরিয়ার (ইমন) ওরফে সালমান শাহ। সে সময় এ বিষয়ে অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছিলেন তার বাবা প্রয়াত কমরউদ্দিন আহমদ চৌধুরী। পরে ১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ করে মামলাটিকে হত্যা মামলায় রূপান্তরিত করার আবেদন জানান তিনি। অপমৃত্যু মামলার সঙ্গে হত্যাকাণ্ডের অভিযোগের বিষয়টি একসঙ্গে তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দেন আদালত।