ক্ষোভে ফুসছে সোশ্যাল মিডিয়াঃ আইডিয়াল স্কুলের ওড়না কান্ড

12
Print Friendly, PDF & Email

নিউজবি টোয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্কঃ
রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল ও বনশ্রী আইডিয়ালে মেয়েদের ওড়না পরা নিষিদ্ধের খবরে অভিভাবক ও সচেতন মহলে তোলপাড় শুরু হয়েছে। ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ বিধান হিজাব তথা ওড়না নিষিদ্ধের খবর ছড়িয়ে পড়ার পর ক্ষোভে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া। এ নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ ও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নেটিজেনরা।

জানা যায়, ওড়না নিষিদ্ধের বিষয়ে গভর্নিং বডির পক্ষ থেকে একটি প্রজ্ঞাপনও জারি করা হয়েছে। ৩০.১০.২০১৯ ইং তারিখে এই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয় এবং ২০২০ সালের জানুয়ারী থেকে এটি চালু করা হবে বলে জানানো হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে শুধু ইসলামের অবমাননাই হচ্ছে না ছাত্রছাত্রীদের মাঝে অশ্লীলতা ও অনাচারকে উৎসাহিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ নেটিজেনদের।

ফেইসবুকে ক্ষোভ জানিয়ে আকরাম হোসেন লিখেছেন, ‘‘এটা ভারত না, যা মন চায় তাই করা যাবে। এটা মুসলমান কান্ট্রি, পর্দা আল্লাহর বিধান তা মুসলিম নারীদের জন্য ফরয। তা নিষিদ্ধ করার সাহস কারো নেই।’’

শাহাদাত হোসেন লিখেছেন, ‘‘যারা ওড়না ব্যবহার নিষেধ করেছে, তাদের মা, বোন এবং মেয়েদেরকে স্কুলের সামনে ওড়না ছাড়া দাঁড় করিয়ে রাখা উচিত।’’

‘‘৯৫ শতাংশ মুসলমানের দেশে ওড়না নিষিদ্ধ করার সাহস কি করে হয়। এ স্কুল-কলেজে অবিলম্বে আইনের আওতায় আনা হোক শিক্ষকদের’’ ইসলাম বিদ্বেষীদের শাস্তির দাবি জানিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন জসিম খান।

ইসমাইল মোহাম্মাদ মনে করেন, ‘‘ওড়না আগে যারা পড়েনি এখন তারা সহ ওড়না আরো বেশি পরা শুরু করবে, ইনশাআল্লাহ।’’

প্রতিবাদ জানিয়ে নাইম খান লিখেছেন, ‘‘কাফেরের…. এই রকম সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওদেরকে প্রতিহত করতে হবে। এই দেশ থেকে ইসলামকে বিদায় করতে চায় ওরা।’’

‘‘ওড়না ছাড়া চলে ধর্ষিতা হবেন তখন এর দায়ভার সরকারকে নিতে হবে এটা হবেনা। তাই এই সকল স্কুলগুলোকে নিয়ে সরকারকে এখনি ভাবতে হবে, এসকল কুচক্রীমহলকে এখনি দমাতে হবে। আমরাতো কোনো হিন্দু মেয়েকে বলিনা তোমরা বোরকা পড়ে রাস্তায় বের হও’’ লিখেছেন আব্দুল্লাহ আমান।

এস এম শহিদুল হক লিখেছেন, ‘‘সত্যি যদি হয় এটি সম্পূর্ণ কুরআন বিরোধী।কুরআন অনুযায়ী মাথার কাপড় টেনে বুক ঢাকার কথা বলা হয়েছে।’’