প্রশ্ন ফাঁসের দায়ে ৬৩ শিক্ষার্থীকে বহিস্কার করতে যাচ্ছে ঢাবি কর্তৃপক্ষ

8
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতির দায়ে ৬৩ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিস্কার করতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আজ সকাল সাড়ে দশটায় শৃঙ্খলা পরিষদের বৈঠকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত হতে পারে। জালিয়াতির ঘটনায় এ নিয়ে আজীবন বহিস্কৃত শিক্ষার্থীর সংখ্যা দাঁড়াবে ৭৮ জনে। চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের দীর্ঘ অনুসন্ধানে এই জালিয়াত চক্রটি ধরা পড়ে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশ্ন ফাঁস মামলায় ১২৫ জনকে আসামী করে চার্জশীট দেয় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ, সিআইডি। আসামীদের মধ্যে ৮৭ জনই ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

এ ঘটনায় জড়িত ১৫ জনকে আগেই আজীবন বহিস্কার করেছিল কর্তৃপক্ষ। বাকিদের কারণ দর্শাতে নোটিশ দেয়। জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় আরও ৬৩ জনকে স্থায়ী বহিস্কার করতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতির দায়ে আজকের বৈঠকে আলোচনা হবে। বৈঠকে আলোচনা শেষে যে সিদ্ধান্তটি হবে সেটি সিন্ডিকেটে যাবে। সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর।

আজীবন বহি:স্কারের সিদ্ধান্তের মাধ্যমে জালিয়াতির বিরুদ্ধে নিজেদের কঠোর অবস্থান নিশ্চিত করতে চায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।