কুর্মিটোলায় বাস থেকে নামার পর ঢাবি শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

11
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
রাজধানীর কুর্মিটোলা এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রী এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওসিসির নিরাপত্তা সেলে চিকিৎসাধীন।

সোমবার (৬ জানুয়ারি) রাত দেড়টার দিকে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের এ এস আই আবদুল খান এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

আবদুল খান জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের একজন ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি। তাকে হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকের কাছে তিনি (ভুক্তভোগী ছাত্রী) ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন।

ছাত্রীর বরাত দিয়ে এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, রোববার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কুর্মিটোলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস থেকে নামার পর অজ্ঞাত যুবক তার মুখ চেপে ধরে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। জ্ঞান ফেরার পর বিষয়টি একজন বন্ধুকে জানান তিনি। পরে ওই বন্ধু তাকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যান।

জানা গেছে, ধর্ষণের পাশাপাশি নির্যাতনও করা হয়। শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের ক্ষতচিহ্ন রয়েছে।

খবর পেয়ে রাত দেড়টার দিকে হাসপাতালে ছুটে যান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রাব্বানী, শিক্ষক সাদেকা হালিমসহ ওই ছাত্রীর সহপাঠীরা।

গোলাম রাব্বানী বলেন, এ ঘটনায় খুবই মর্মাহত হয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবকিছু দিয়ে তদন্তে সাহায্য করবে।

ক্যান্টনমেন্ট থানার দায়িত্বরত উপ-পরিদর্শক এস আই কামরুল ইসলাম জানান, এ রকম কোনও ঘটনার বিষয়ে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ করেনি।