ক্ষ্যাপা ইরান থেকে বাঁচতে প্রস্তুত ইসরায়েল!

11
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
মার্কিন বিমান হামলায় ইরানের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা কাসেম সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর মধ্যপ্রাচ্য জুড়েই বিরাজ করছে চাপা উত্তেজনা। ইরানের বর্তমান ‘নীরবতা’ যেন ঝড় শুরু হওয়ার পূর্বাভাস। যে কোনো সময় এই ঝড় আছড়ে পড়তে পারে যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল কিংবা তার মিত্রদের ওপর।

এ কারণেই শঙ্কিত ইসরায়েল। দেশটির প্রতিটা মুহূর্ত কাটছে অনিশ্চয়তায়। ইতোমধ্যেই প্রতিরক্ষামূলক নানা ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে তেল আবিব। সোলাইমানি নিহতের পরই ইসরায়েলের শীর্ষ কর্মকর্তারা বৈঠকে বসেন এবং তড়িঘড়ি করে দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু।

লন্ডনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিডেল ইস্ট আই এক প্রতিবেদনে জানায়, ইরানের প্রতিক্রিয়া কেমন হবে সেটিই এখন ইসরায়েলের প্রথম শঙ্কা। অবশ্য প্রতিক্রিয়ার সিদ্ধান্তটি নেবেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।

সোলাইমানি হত্যার জবাব হিসেবে হরমুজ প্রণালি বন্ধ করে দিতে পারে ইরান। এমনকি মার্কিন বিমানে ও দূতাবাসে হামলা চালাতে পারে। সে ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ একটি যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়েই এমন পদক্ষেপ নিতে হবে তেহরানের।

সোলাইমানি হত্যার জবাব হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র ইসরায়েলেও বড় ধরনের হামলা চালাতে পারে ইরান। এ ক্ষেত্রে তারা হিজবুল্লাহ, হামাস ও ইসলামিক জিহাদের মতো সংগঠনের সহায়তা নিতে পারে। এটি নিয়েই উদ্বিগ্ন ইসরায়েল। কারণ, ইরানের সবুজ সঙ্কেতে চতুর্দিক থেকে তাদের ওপর হামলা হতে পারে। এতে ছিন্ন-ভিন্ন হয়ে যাবে তেল আবিব। এমন পরিস্থিতি সামাল দেওয়া ইসরায়েলের জন্য সত্যিই কঠিন হয়ে যাবে।

সম্ভাব্য সব হামলা বিবেচনায় নিয়ে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসরায়েল। দেশজুড়ে নিরাপত্তাও জোরদার করেছে। হামলার আশঙ্কায় বেশ কয়েকটি জায়গায় সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে তারা। এরপরও ক্ষ্যাপা ইরান থেকে তারা রক্ষা পায় কি না তা সময়ই বলে দেবে।